প্রথম চারে শেষ করার আশা জিইয়ে রাখল বাগান

আইজল: শেষ তিন ম্যাচে জয় নেই। লিগ জয়ের ইঁদুরদৌড় থেকে ছিটকে যেতে হয়েছে আগেই। তাই পড়শি ক্লাব যখন চ্যাম্পিয়নশিপের লক্ষ্যে টপ গিয়ারে, বাগানে তখন লক্ষ্য অন্তত সম্মানজনক অবস্থায় লিগ শেষ করা। সেই লক্ষ্যে শনিবার পাহাড়ে আইজলের মুখোমুখি হয়েছিল খালিদ জামিলের মোহনবাগান। আর রাজীব গান্ধী স্টেডিয়ামে এদিন আইজল এফসি’কে ২-১ গোলে হারিয়ে লিগে প্রথম চারে শেষ করার আশা জিইয়ে রাখল সবুজ-মেরুন।

ইনভেস্টর সমস্যায় শুক্রবারের বিকেলেই প্রতিবাদী সমর্থকদের অবস্থানে উত্তাল হয়েছিল ক্লাব প্রাঙ্গন। ক্লাবের অচলাবস্থা অবিলম্বে কাটাতে কর্তাদের কাছে একগুচ্ছ দাবি নিয়ে ক্লাব তাঁবুতে হাজির হয়েছিলেন বাগান সমর্থকেরা। সমর্থকদের সেই প্রতিবাদ-বিক্ষোভের আঁচ সুদূর পাহাড়ে বাগানের খেলায় কতটা আঁচ ফেলেছিল জানা নেই। তবে উগান্ডান স্ট্রাইকের হেনরি কিসেকার গোলে এদিন ম্যাচে এগিয়ে যায় বাগান।

চার্চিল ম্যাচের প্রথম একাদশ থেকে মাত্র একটি পরিবর্তন করে রোজারিওর আইজলের বিরুদ্ধে এদিন দল সাজান খালিদ জামিল। আল হুসেইনির পরিবর্তে কিমকিমাকে এনে আইজল বধের লক্ষ্যে নামেন মুম্বইকর কোচ। বাগান এগিয়ে যাওয়ার আগেই কিংসলের একটি দূরপাল্লার শট নাড়িয়ে দিয়ে যায় আইজল রক্ষণকে। প্রথম প্রচেষ্টায় লালওয়ামপুইয়া সেই বল ধরতে ব্যর্থ হন। তবে কাছেই থাকা সনি ধরার আগে সেই বল কব্জা করে নেন আইজল গোলরক্ষক।

- Advertisement -

৩২ মিনিটে ডিফেন্ডার গুরজিন্দর কুমারের লম্বা লব জমা পড়ে হেনরি কিসেকার আস্তানায়। উগান্ডান স্ট্রাইকারের নেওয়া জোরালো শট গোলরক্ষক ফের প্রতিহত করলে ফিরতি বলে স্কোরলাইন ১-০ করেন কিসেকা। যদিও ম্যাচে ফিরে আসতে বেশি সময় নেয়নি রোজারিওর দল। ৩৮ মিনিটে বক্সের বাইরে থেকে নেওয়া ক্রোমার শট সামান্য প্রতিহত হয়ে গোলের ঠিকানা খুঁজে নেয়।

দ্বিতীয়ার্ধে ম্যাচ জয়ের চেষ্টার কোনও ত্রুটি রাখেনি বাগান। শুরুতেই গোলের কাছে পৌঁছে গেলেও স্কোরশিটে নাম তুলতে পারেননি সনি নর্ডি। ৭৩ মিনিটে গোলে সহজ একটি শট নিতে ব্যর্থ হন দিপান্দা ডিকা। উলটোদিকে ৬৭ মিনিটে আইজলের দুরন্ত একটি আক্রমণ প্রতিহত হয় শিলটনের দস্তানায়। নাকচ হয় তাদের একটি পেনাল্টির দাবিও। অবশেষে ৭৮ মিনিটে নর্ডির ফ্রি-কিক থেকে গোল করে তিন ম্যাচ পর সবুজ-মেরুনকে জয় এনে দেন বিক্রমজিৎ সিং।

এই জয়ের ফলে ১৭ ম্যাচে ২৬ পয়েন্ট নিয়ে লিগ টেবিলে অবস্থার পরিবর্তন না হলেও প্রথম চারে শেষ করার আশা বেঁচে রইল বাগানে। ১৭ ম্যাচে ৩০ পয়েন্ট নিয়ে এইমুহূর্তে চার নম্বরে রয়েছে চার্চিল। অন্যদিকে সমসংখ্যক ম্যাচে সমান পয়েন্ট নিয়ে গোলপার্থক্যে পাঁচে রয়েছে নেরোকা এফসি।