ড্র’য়ে নিস্পত্তি বাঙালির ফুটবল মহাযুদ্ধ

কলকাতা: শেষ সাতটি ডার্বিতে অপরাজিত থাকার রেকর্ড বজায় রাখলেও জিততে পারল না মোহনবাগান৷ বরং বলা ভালো গোলকিপার শিল্টন পালের সামান্য ভুলে ইস্টবেঙ্গলের বিরুদ্ধে নিশ্চিত জেতা ম্যাচ যুবভারতীতে ফেলে এল সবুজ-মেরুন শিবির৷

ম্যাচের আধ ঘণ্টার মধ্যে ইস্টবেঙ্গলের জালে দু’বার বল জড়ানো মোহনবাগান ২-১ গোলে এগিয়ে থেকে প্রথমার্ধের খেলা শেষ করেছিল৷ দ্বিতীয়ার্ধে শংকরলালের দল আরও একটি গোল হজম করায় ২-২ গোলের সমতায় শেষ হল মরশুমের প্রথম কলকাতা ডার্বি৷

আরও পড়ুন: টিকিটের চাহিদা বৃদ্ধির জন্য মুখ্যমন্ত্রীকে কৃতিত্ব দিলেন ইস্টবেঙ্গল কর্তা

- Advertisement -

মোহনবাগানের হয়ে ম্যাচের ১৯ মিনিটে প্রথম গোল করেন পিন্টু মাহাতা৷ অরিজিৎ বাগুইয়ের পাস থেকে গোল করেন তিনি৷ ২৯ মিনিটে ব্যবধান বাড়িয়ে ম্যাচের স্কোরলাইন ২-০ করেন হেনরি৷ তাঁকেও গোলের পাস বাড়ান অরিজিৎ৷

কলকাতা ডার্বির মতো বড় মঞ্চে ভারতীয় ফুটবলে আত্মপ্রকাশ করা কোস্টারিকান বিশ্বকাপার জনি অ্যাকোস্টা অভিষেক ম্যাচেই গোল করে ইস্টবেঙ্গলের ব্যবধান কমিয়ে ২-১ করেন৷ প্রথমার্ধের সংযোজিত সময়ে (৪৫+২) গোল করেন লাল-হলুদের নবাগত বিদেশী৷

আরও পড়ুন: ডার্বির প্রাক্কালে সই সারলেন অ্যাকোস্টা

যদিও এক্ষেত্রে ইস্টবেঙ্গল ভাগ্যের কিছুটা সাহায্য পায়৷ অ্যাকোস্টার হেড শিল্টনের দস্তানায় প্রতিহত হওয়ার পর মোহনবাগান ডিফেন্ডারের শট অ্যাকোস্টার গায়ে লেগে জালে ঢুকে যায়৷

দ্বিতীয়ার্ধে ইস্টবেঙ্গলের হয়ে সমতাসূচক গোল করেন লালদানমাওইয়া৷ ম্যাচের ৬১ মিনিটে শিল্টনকে পরাস্ত করে মোহনবাগানের জালে বল জড়ান তিনি৷ রালতের কর্ণার বাঁ-দিকে ঝাঁপিয়ে শিল্টন ক্লিয়ার করার পর ফিরতি বলে শট নিয়ে গোল করেন যান লালদানমাওইয়া৷

আরও পড়ুন: বড় ম্যাচে ইস্টবেঙ্গল ডাগআউটে চমক

বাকি সময়ে দু’দল বেশ করেকটা সংঘবদ্ধ আক্রমণে উঠলেও বিপক্ষের গোলমুখ খুলতে পারেননি৷ কয়েকটা সহজ সুযোগ হাতছাড়া করেছেন ডিকা-আমনারা৷ ডার্বি ড্র হওয়ায় অষ্টম রাউন্ডের ম্যাচ শেষে মোহনবাগান ও ইস্টবেঙ্গল দু’দলের সংগৃহীত পয়েন্ট সংখ্যা দাঁড়া ২০৷ গোল পার্থক্যেও দু’দল একই জায়গায় দাঁড়িয়ে৷ শুধু দু’টি গোল বেশি করার জন্য লিগ টেবিলের শীর্ষে থেকে গেল মেরিনার্সরা৷

Advertisement
---