মুর্শিদাবাদে তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দিলেন শতাধিক মুকুল অনুগামী

বহরমপুর: ফের ভাঙন মুর্শিদাবাদের তৃণমূল শিবিরে। অধীর গড়ে শতাধিক তৃণমূল সমর্থক যোগ দিলেন পদ্ম শিবিরে।

আরও পড়ুন- অধীর গড়ে বিজেপিতে যোগ দিল ৬০০ তৃণমূল কর্মী

একদা ছিল কংগ্রেসের শক্ত ঘাঁটি। পরিবর্তনের জামানায় অনেকটাই নড়বড়ে হয়েছে হাতের দাপট। এই সবকিছুই হয়েছিল দলবদলের খেলায়। কংগ্রেসের অনেক নেতা-বিধায়ক যোগ দিয়েছিলেন ঘাস ফুল শিবিরে। নিজের খাসতালুকেও দলের পতন ঠেকাতে পারেননি প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি অধীর রঞ্জন চৌধুরী।

- Advertisement -

মঙ্গলবার রাতে মুর্শিদাবাদের চুনাখালি মোড়ে ভারতীয় জনতা পার্টির একটি পথসভা অনুষ্ঠিত হয়। বিজেপি ৩৬ নং মণ্ডলের পক্ষ থেকে আয়োজিত সেই পথসভায় ১১০ জন তৃণমূল সমর্থক গেরুয়া শিবিরে নাম লেখান। দলের নবাগত সদস্যদের হাতে পতাকা তুলে দিয়েছেন মুর্শিদাবাদ জেলা বিজেপির সাধারণ সম্পাদক ও জাতীয় উপদেষ্টা কমিটির সদস্য মাননীয় বিশ্বনাথ নিয়োগী। নতুন করে গেরুয়া নামাবলী গায়ে জড়ানো সকল তৃণমূল সমর্থক মুকুল রায়ের অনুগামী। তাঁর(মুকুল রায়ের) আহ্বানেই ঘাস ছেড়ে পদ্ম ফুলের পতাকাতলে এসেছেন উক্ত ১১০ জন। মুর্শিদাবাদ জেলা বিজেপির পক্ষ থেকে এমনই জানিয়েছেন সুবর্ন চক্রবর্তী।

এর আগে চলতি মাসের ছয় তারিখে এই জেলাতেই প্রায় ৬০০ জন তৃণমূল কর্মী সমর্থক বিজেপিতে নাম লিখিয়েছিলেন। সেদিন গেরুয়া শিবিরে যোগ দেওয়া তৃণমূল কর্মীদের মধ্যে তৃণমূলের দু’জন প্রাক্তন পঞ্চায়েত প্রধান ছিলেন। একাধিক পঞ্চায়েত সদস্যও ছিলেন বলে দাবি করেছিল বিজেপি শিবির। ঘটনাচক্রে সেইদিনই আনুষ্ঠানিকভাবে ভারতীয় জনতা পার্টিতে নাম লিখিয়েছিলেন তৃণমূল কংগ্রেসের প্রতিষ্ঠাতা মুকুল রায়।

মঙ্গলবার সকালেই পরলোক গমন করেছেন মুর্শিদাবাদ তৃণমূলের জেলা সভাপতি মান্নান হোসেন। এই মান্নান হোসেন একসময় কংগ্রেসের নেতা ছিলেন। দলবদল করে তৃণমূলে এসেছিলেন। তাঁর মৃত্যুর দিনেই দলবদলের নয়া নজির গড়ল মুর্শিদাবাদের বিজেপি নেতৃত্ব।

Advertisement
---