‘সন্ত’ পাচ্ছেন মাদার টেরেজা

ভ্যাটিক্যান সিটি: ‘সন্ত’ উপাধি পাচ্ছেন মাদার টেরেজা। ভ্যাটিক্যান সিটির তরফে এমনই ঘোষণা করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার খবরটি নিশ্চিত করেন কলকাতার মিশনারিজ অফ চ্যারিটির মুখপাত্র সুনীতা কুমার। তাঁর কথায়, “মাদার যে সন্ত উপাধি পাবেন, এই খবরটি ভ্যাটিক্যান সিটির তরফে সরকারিভাবে নিশ্চিতভাবে আমরা পেয়েছি।’’ মাদারকে সন্ত উপাধি দেওয়ার ঘোষণায় তাঁরাও খুব খুশি বলে জানিয়েছেন সুনীতা কুমার। পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ও মাদার টেরেজের ‘সন্ত’ উপাধি পাওয়ার খবরে খুশি হয়েছেন এবং মিশনারিজ অফ চ্যারিটিকে শুভেচ্ছা জানিয়ে ট্যুইট করেছেন।

যদিও ঠিক কবে নোবেল বিজয়ী এই মিশনারিজকে ‘সন্ত’ হিসেবে ঘোষণা করা হবে, তা এখনও ভ্যাটিক্যানের তরফে স্পষ্ট করে জানানো হয়নি। তবে আগামী বছর ৫ সেপ্টেম্বর অর্থাৎ মাদার টেরেজার মৃত্যুবার্ষিকীতে ক্যানোনাইজেশন সেরিমনির মাধ্যমে তাঁকে ‘সন্ত’ উপাধি দেওয়া হতে পারে বলে সূত্রের খবর।   

মাদার টেরেজার ‘সন্ত’ পাওয়ার পথ মসৃণ করার ব্যাপারে পোপ ফ্রান্সিসের ভূমিকা রয়েছে। মাদার টেরেজা অলৌকিক ক্ষমতার অধিকারী ছিলেন বলে বৃহস্পতিবার পুনরায় দাবি জানান পোপ ফ্রান্সিস। শুধু দাবি জানানোই নয়, মাদারের অলৌকিক ক্ষমতার দ্বিতীয় ঘটনারও স্বীকৃতি দেন। এরপরই এই মিশনারিজকে ‘সন্ত’ উপাধি দেওয়ার চিন্তা-ভাবনা শুরু হয়।

সুনীতা কুমার জানান, মাদারের অলৌকিক ক্ষমতার যে দ্বিতীয় ঘটনার স্বীকৃতি দেওয়া হয়েছে, সেটি ব্রাজিলের ঘটনা। মস্তিষ্কের দুরারোগ্য অসুখে আক্রান্ত এক ব্রাজিলিয়ানকে মুহূর্তের মধ্যে সারিয়ে তুলেছিলেন মাদার টেরেজা। কেবল তাঁর প্রার্থনার মাধ্যমেই আশ্চর্যজনকভাবে কয়েক মিনিটের মধ্যে সুস্থ হয়ে উঠেছিলেন ওই ব্যক্তি। কলকাতায় মাদারের প্রথম অলৌকিক ক্ষমতার প্রমাণ পাওয়া গিয়েছিল বলেও জানান সুনীতা। ২০০৩ সালে সেই ঘটনার প্রেক্ষিতে মাদার টেরেজাকে অলৌকিক ক্ষমতার অধিকারী হিসেবে স্বীকার করে নিয়েছিলেন তৎকালীন পোপ জন পল-২। বৃহস্পতিবার পোপ ফ্রান্সিস প্রয়াত মাদারকে অলৌকিক ক্ষমতার অধিকারী হিসাবে স্বীকৃতি দিলেন এবং তাঁর ভূয়সী প্রশংসাও করলেন।  

মিশনারিজ অফ চ্যারিটির প্রতিষ্ঠাতা মাদার টেরেজা ইতালিতে জন্মগ্রহণ করলেও জীবনের অধিকাংশ সময়টাই কাটিয়েছেন ভারতে। এ দেশের দরিদ্র, অসুস্থ অনাথদের সেবাতেই নিজের জীবন উৎসর্গ করেছেন তিনি। কলকাতার পথ শিশুদের সেবায় প্রায় ৪৫ বছর কাটিয়েছেন তিনি। তারপর ১৯৯৭ সালে ৮৭ বছর বয়সে কলকাতাতেই মৃত্যুবরণ করেন তিনি। মাদার টেরেজাকে সম্মান জানিয়ে তাঁকে ভারত সরকারের তরফে ‘ভারতরত্ন’, ‘পদ্মশ্রী’ ‘জওহরলাল নেহেরু’, ‘নোবেল শান্তি’ সহ একাধিক পুরস্কার দেওয়া হয়। এবার ভ্যাটিক্যান সিটিও ‘সন্ত’ উপাধি দিয়ে বিশেষ সম্মান জানাতে চলেছে মাদার টেরেজাকে।  

Advertisement
----
-----