অধীরকে গুরুত্বহীন করে তৃণমূলকে কাছে টানলেন মৌসম

স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: দলের প্রদেশ নেতৃ্ত্বের লাইনের বাইরেই হাঁটলেন মৌসম নূর৷ পঞ্চায়েত নির্বাচনে মালদহের ত্রিশঙ্কু আসনগুলিতে শেষপর্যন্ত তৃণমূল কংগ্রেসকে সমর্থনের সিদ্ধান্ত নিলেন তিনি৷ কংগ্রেস সাংসদের এই সিদ্ধান্ত একদিকে যেমন অধীর চৌধুরী-আব্দুল মান্নানদের অস্বস্তি বাড়াল অন্যদিকে মৌসমেরও তৃণমূল যোগের জল্পনা আরও বাড়ল৷

১৯-এর লোকসভা সভা নির্বাচনে সিপিএমের সঙ্গে জোট বাঁধতে চায় প্রদেশ কংগ্রেস৷ দলের সভাপতি রাহুল গান্ধীর কাছেও সেই আবেদন জানিয়েছেন অধীর চৌধুরী-আব্দুল মান্নানরা৷ কিন্তু তার আগেই তৃণমূলের হাত ধরলেন প্রয়াত গণি খান চৌধুরী ভাগ্নী তথা মালদহের কংগ্রেস সাংসদ মৌসম নূর৷ নিজের জেলায় তৃণমূলের সঙ্গে হাত ধরাধরি করে প্রায় ১৪৬টি পঞ্চায়েত বোর্ড গঠন করছেন তিনি৷ উল্লেখযোগ্য বিষয়, যে পঞ্চায়েত নির্বাচনে তৃণমূলের বিরুদ্ধে সন্ত্রাসের অভিযোগে সরব হয়েছিলেন মৌসম।

পড়ুন: মোদীতে আস্থা রেখে অধীর গড়ে কংগ্রেসে ভাঙন

- Advertisement -

দলীয় প্রার্থীদের মনোনয়ন জমা দিতে বাধা দেওয়া হয়েছে, এই অভিযোগে ভোটের আগে বিক্ষোভেও শামিল হয়েছিলেন তিনি। তবে, ভোট মিটে যাওয়ার পর থেকেই তৃণমূল নিয়ে তাঁর সুর নরম হয়৷ গত মাসে কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধীর সঙ্গে দেখা করে রাজ্যে তৃণমূলের সঙ্গে কংগ্রেসের জোটের পক্ষে সরব হন মৌসম। পঞ্চায়েত বোর্ড গঠনে বামেদের বাদ দিয়ে শুধু তৃণমূলের সঙ্গে জোটের সিদ্ধান্ত নেওয়ার বিষয়ে মৌসমের বক্তব্য, বিজেপি দেশের প্রধান শত্রু। এর মোকাবিলায় ঐক্য গড়তে হলে তৃণমূলের পাশে দাঁড়াতে হবে। তৃণমূলের মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের বক্তব্য, এটা আরও আগে হলে ভালও হত৷ ওনার এই সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানাচ্ছি৷

কংগ্রেস সূত্রের খবর, লোকসভা নির্বাচনের আগে দলীয় সাংসদের এই সিদ্ধান্তে বহু নীচুতলার কংগ্রেস কর্মী যেমন ক্ষুব্ধ তেমন বিড়ম্বনায় পড়েছে প্রদেশ কংগ্রেস নেতৃত্ব৷ যদিও তৃণমূলকে বিধেঁই সেই অস্বস্তি ঢাকার চেষ্টা করেছেন প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি অধীর চৌধুরী৷ মৌসমের প্রসঙ্গে এড়িয়ে তাঁর বক্তব্য, যে পঞ্চায়েত বিরোধীশূন্য হবে সেখানে পাঁচ কোটি টাকা বকশিস দেওয়া হবে৷ তাই যে কোনও উপায়ে পঞ্চায়েত দখল করাই এখন তৃণমূল নেতাদের লক্ষ্য৷

পড়ুন: পুরোহিতদের পর কেষ্টোর গড়ে সম্বর্ধনা আদিবাসী মোড়লদের

এদিকে, তৃণমূলের অন্দরে গুঞ্জন, আগামী ৩ সেপ্টেম্বর কলকাতায় দলের শীর্ষ নেতৃত্বের সঙ্গে মৌসমের বৈঠকের সম্ভাবনা রয়েছে। সেখানেই দলবদলের ইঙ্গিত মিলতে পারে। যদিও সেই জল্পনা উড়িয়ে দিয়েছেন মৌসম৷

Advertisement ---
---
-----