ছেঁড়া উত্তরীয়তে মুকুল-বরণ বিজেপির

স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা : মুকুল রায়ের সাংগঠনিক দক্ষতাকে কাজে লাগাবে বিজেপি৷ মুকুল এলে বিজেপির সাংগঠনিক শক্তি বাড়বে৷ তৃণমূলের প্রাক্তন সেকেন্ড-ইন-কম্যান্ডকে দলে স্বাগত জানাতে গিয়ে ঠিক এভাবেই প্রশংসা করেছিলেন কেন্দ্রীয়মন্ত্রী রবিশঙ্কর প্রসাদ৷ আর তার মিনিট দুয়েক পর বিজেপির পশ্চিমবঙ্গের পর্যবেক্ষক কৈলাস বিজয়বর্গীয় উত্তরীয় পরিয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে মুকুল রায়কে স্বাগত জানান বিজেপিতে৷

কিন্তু সেই উত্তরীয়ই ছিল ছেঁড়া৷ মুকুল রায় যখন উত্তরীয় পড়েন, তখন বিষয়টি বোঝা যায়নি৷কারণ, ছেঁড়া অংশটি ছিল, তাঁর বামকাঁধের উপর৷ কিন্তু মুকুল রায় যখন সংবাদমাধ্যমের সঙ্গে কথা বলেছেন, তখনই বিষয়টি নজরে আসে৷ দেখা যায়, মুকুল রায়ের গলায় যে উত্তরীয় রয়েছে, তা ছেঁড়া রয়েছে৷ তখন তাঁর পাশেই বসেছিলেন রবিশঙ্কর প্রসাদ৷

ফলে সেই ছবি সঙ্গে সঙ্গে ভাইরাল হয়ে যায়৷ সোশ্যাল মিডিয়ায় সেই ছবি ছড়িয়ে পড়ে৷ শুরু হয়ে যায় কমেন্ট৷ তৃণমূলের নেতা-কর্মী-সমর্থকরা সঙ্গে সঙ্গে তির্যক মন্তব্যও শেয়ার করতে শুরু করেন৷ বিজেপি আসলে মুকুলকে দলে নিতে চায়নি, এমন মন্তব্যও করেন অনেকে৷ কারও কারও ব্যাখ্যা আবার, মুকুল রায় নিজেই তড়িঘড়ি তাঁকে বিজেপিতে নেওয়ার জন্য জোরাজুরি করেছেন৷ তাই দ্রুততার সঙ্গে সেই কাজ করতে গিয়ে এভাবে ছেঁড়া উত্তরীয় দিয়েই মুকুল রায়কে বরণ করা হয়৷ কেউ কেউ আবার বলছেন, মুকুলের অবস্থায় বিজেপিতে ঠিক কেমন হবে, তা বোঝাতে এই উত্তরীয়ই হয়ে রইল প্রতীকী৷

- Advertisement -

বিজেপির তরফে অবশ্য দ্রুততার বিষয়টি মেনে নেওয়া হয়েছে৷ তবে বিজেপির ব্যাখ্যা, মুকুল রায়ের বিজেপিতে যোগদানের শেষ পর্বটি খুব দ্রুততার সঙ্গে সম্পন্ন হয়েছে৷ ফলে সাংবাদিক বৈঠক তাড়াতাড়ি আয়োজন করা হয়েছে৷ সেক্ষেত্রে উত্তরীয় যে ছেঁড়া, তা সকলের নজর এড়িয়ে যায়৷ তাই এই ভুল৷ এবং পুরোটাই অনিচ্ছাকৃত৷

Advertisement
---