নদিয়ায় বাবা-মার গায়ে পেট্রোল ঢেলে আগুন দিল ছেলে

স্টাফ রিপোর্টার, নদিয়া: সম্পত্তি,টাকা নিয়ে বিবাদের জেরে নিজের বাবা মাকে পুড়িয়ে মারার চেষ্টার অভিযোগ উঠল ছেলের বিরুদ্ধে। চাঞ্চল্যকর ঘটনাটি ঘটেছে রানাঘাট থানার রাবনবোড় এলাকায়। বাবা বৈদ্যনাথ বিশ্বাসের(৮৩)মৃত্যু হলেও মা স্বরস্বতী বিশ্বাসের(৬৮)সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছে৷ অভিযুক্ত অবোধ বিশ্বাস এখনও গ্রেফতার হয়নি৷

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, দিন কয়েক আগে বাড়ির কিছু পুরাতন সেগুন গাছ ৯০ হাজার টাকায় বিক্রি করেন বৈদ্যনাথবাবু। গাছগুলি কেনেন বৈদ্যনাথ বিশ্বাসের জামাই দীপক বিশ্বাস। সেই টাকা বৈদ্যনাথ বাবু নিজের নামে ব্যাঙ্কে রাখতে চাইলে তাতে বাধা দেয় ছোট ছেলে অবোধ বিশ্বাস এবং মেজো ছেলে পরিতোষ বিশ্বাস৷

অভিযোগ সেই টাকার ভাগ না পেয়ে নিজের মোটরবাইকের পেট্রোল বাবা মার গায়ে ঢেলে দিয়ে আগুন জ্বালিয়ে দেয় অবোধ। বাবা মা আগুনে ঝলসে যেতে দেখে সে বাঁচানোর চেষ্টা করে নিজেও অগ্নিদগ্ধ হয়।

- Advertisement -

আরও পড়ুন: ‘একটি মেয়ে দশটি ছেলের সমান’

আশঙ্কাজনক অবস্থায় বৈদ্যনাথবাবু ও স্বরস্বতীদেবী দুজনকেই রানাঘাট মহকুমা হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়৷ সেখানেই মারা যান বৈদ্যনাথবাবু৷ বর্তমানে কল্যানী জে.এন.এম হাসপাতালে মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছেন স্বরস্বতীদেবী। অভিযুক্ত ছেলে অবোধ বিশ্বাস নিজেও রানাঘাট মহকুমা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

এই ঘটনায় সেজো ছেলে সুবোধ বিশ্বাস রানাঘাট থানায় তার ভাই অবোধের নামে অভিযোগ দায়ের করেছে। তবে চিকিৎসাধীন থাকায় পুলিশ অভিযুক্তকে গ্রেফতার করেনি।তাকে পুলিশি প্রহরায় রাখা হয়েছে।

Advertisement
---