শুধুমাত্র ‘ভার্জিন’দের জন্যই এই রাজ্য সরকারি চাকরি

পাটনা: সংস্থায় চাকরির আবেদন করতে গেলে এবার নাকি জানাতে হবে আপনি ‘ভার্জিন’ বা কুমারী কিনা।  সাধারণত যে কোনও সংস্থায় চাকরির আবেদন করতে গেলেই প্রার্থীর বিবাহিত না অবিবাহিত এই তথ্যটি দিতেই হয়।  কিন্তু বিহারের এই ইন্দিরা গান্ধী ইন্সটিটিউট অফ মেডিক্যাল সায়েন্স আবার এক পা বাড়িয়ে আরও গোপন কিছু জানতে চাইছে।  সব মিলিয়ে ফের বিতর্কের কেন্দ্রে বিহার।

পশ্চিমবঙ্গের প্রতিবেশী এই রাজ্যে শিক্ষা থেকে শুরু করে মদ্যপান ব্যান করে বহু বিতর্কের কেন্দ্রে এসেছে।  রাজ্যের তালিকায় নতুন সংযোজন চাকরি প্রার্থীর সেক্সুয়াল স্ট্যাটাস জানতে চাওয়া।  পাটনার এই হাসপাতাল তাদের নতুন চাকরি প্রার্থীদের ফর্মে একটি অংশ রেখেছে যেখানে প্রার্থীকে জানতে চাওয়া হয়েছে তিনি অবিবাহিত , বিধবা নাকি কুমারী? এখানেই তৈরি হয়েছে বিতর্ক।

আরও পড়ুন: পুরুষরা কেন এমন করেন, স্পষ্ট জানালেন এই যৌনকর্মী

ঘটনাকে ঘিরে ইতিমধ্যেও প্রতিবাদে নেমেছে এক নারীবাদী সংস্থা।  ঘটনা প্রসঙ্গে হাসপাতালের সুপারিন্টেনডেন্ট মনীশ মন্ডল জানিয়েছেন, “কেন্দ্রীয় সরকারের পক্ষ থেকে একটি ফর্মের ফরম্যাট পাঠানো হয়েছিল।  সেই অনুযায়ী আমরা কাজ করেছি।” পাশাপাশি সুপারিটেনডেন্ট এও স্বীকার করে নিয়েছেন যে, এমন ব্যক্তিগত বিষয়ের তথ্য জানতে চাওয়া প্রত্যেকের ক্ষেত্রেই অত্যন্ত অস্বস্তিকর।

তবে বিতর্ক উস্কানি দিয়েছে মনীশ মন্ডলের আরও এক বক্তব্যে। মনীশ মন্ডলের কথায়, “ভবিষ্যতে কোনও ধর্ষণের ঘটনা ঘটলে এই তথ্য অনেক সাহায্য করবে।” বিহারের স্বাস্থ্যমন্ত্রী মঙ্গল পান্ডে খবরটি যাওয়ার পর তিনি হাসপাতালকে বিষয়টি নিয়ে বিশেষ ভাবে আলোচনা করতে বলেছেন।

Advertisement
---
-----