নিউইয়র্ক: চারবছর পর ফের ইউএস ওপেন জিতলেন রাফায়েল নাদাল৷ দক্ষিণ আফ্রিকার কেভিন অ্যান্ডারসনকে হারিয়ে ফ্লাশিং মেডোয় তৃতীয় খেতাব জয় করলেন রাফা৷ ম্যাচের ফল নাদালের পক্ষে ৬-৩,৬-৩,৬-৪৷ এদিন নিউইয়র্কে ২৩তম গ্র্যান্ড স্ল্যাম ফাইনালে নামেন রাফা৷ চতুর্থবার কোনও সেট না-হেরে চ্যাম্পিয়ন হলেন স্প্যানিশ তারকা৷

আরও পড়ুন: রোলাঁ গারোয় ১০বার চ্যাম্পিয়ন নাদাল

Advertisement

আমেরিকার পূর্ব উপকুলে আছড়ে পড়েছে হ্যারিকেন ইরমা৷ কিন্তু আর্থার অ্যাশ স্টেডিয়ামে নাদালকে যে ‘টর্নেডো’ রুপে পাওয়া যাবে সেটা বোধহয় আন্দাজ করতে পারেননি প্রথমবার কোনও গ্র্যান্ড স্ল্যামের ফাইনালে ওঠা অ্যান্ডারসন৷ প্রথম সেটে প্রথম দুটি গেমে সমানে টক্কর দিলেও তৃতীয় গেমেই দক্ষিণ অফ্রিকান প্রতিদ্বন্দ্বীর সার্ভিস ভাঙেন নাদাল৷ সেখান থেকে আর ঘুরে দাঁড়াতে পারেননি ডি’ভিলিয়ার্সের দেশের এই টেনিস তারকা৷ দ্বিতীয় সেটেও প্রথম সেটেও একই গল্প৷ তৃতীয় সেটে তো অ্যান্ডারসনকে শিক্ষার্থীর পর্যাযে নামিয়ে এনেছিলেন স্প্যানিশ মহাতারকা৷ রিটার্ন,ফোরহ্যান্ড, কোর্ট কভারেজে তাঁকে বুঝিয়ে দিচ্ছিলেন টেনিসের ‘অ-আ,ক-খ’৷

আরও পড়ুন: তিনবছর পর র‍্যাঙ্কিং-এর শীর্ষে নাদাল

আসলে নাদালের প্রতিদ্বন্দ্বী ফাইনালে উঠেই সন্তুষ্ট ছিলেন৷ তাই সেমিফাইনালের পর তাঁর মন্তব্য ছিল,‘ বুঝতে পারছি না কি বলবো৷ গ্র্যান্ড স্ল্যাম সবসময়েই কঠিন৷ বিশ্বের সেরা খেলোয়াড়দের সঙ্গে খেলতে হয় এখানে৷ আমি এই দিনের জন্য বহুদিন অপেক্ষা করেছি৷ শেষ পর্যন্ত আজকে আমি সফল হলাম৷ এখন আমি এই জয়টাই সেলিব্রেট করতে চাই৷’ এখানেই তাঁর সঙ্গে নাদালের পার্থক্য৷

আরও পড়ুন: ফ্লাশিং মেডোর ফাইনালে রাফা

এদিনও ম্যাচ দেখতে হাজির ছিলেন এবারের মহিলা সিঙ্গলস চ্যাম্পিয়ন সোলানে স্টিফেন্স ও গল্ফ তারকা টাইগার উডস৷ এর আগে ২০১০ও ২০১৩ নোভাক জোকোভিচকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন হয়েছিলেন নাদাল৷ গল্ফের বাঘের সামনে এদিন তৃতীয় ট্রফি জয়ের পর তিনি বলেন,‘ শেষ দুটো সপ্তাহ দারুণ কাটল৷ শেষ দু’বছরে প্রচুর চোট আঘাত পয়েছি৷ সেখান থেকে ফিরে আসটা সোজা ছিল না৷ এরজন্য প্রচুর পরিশ্রম করেছি৷ তাই এ’বছর ভালো খেলতে বদ্ধপরিকর ছিলাম৷ বছরের প্রথম থেকেই আমি ভালো খেলছি৷ নিউইয়র্কের দর্শকদের ধন্যবাদ৷’এই বছরের পর থেকে নাদালের সঙ্গে দেখা যাবে না কাকা টোনিকে৷ তাই কাকার সঙ্গে শেষ গ্র্যান্ড স্ল্যাম জিতে খানিকটা নস্ট্যালজিক হয়ে পড়েন রাফা৷

আরও পড়ুন: ফ্লাশিং মেডোয় শীর্ষবাছাই রাফা

চলতি মরশুমে এটি তাঁর দ্বিতীয় গ্র্যান্ড স্ল্যাম খেতাব৷ ২০১৭ মরশুম ভালোই কাটছে নাদালের৷ ১০ নম্বর ফরাসি ওপেন জয়ের পাশাপাশি মন্টে কার্লো,বার্সেলোনা,মাদ্রিদে ট্রফি জিতেছেন স্প্যানিশ মহাতারকা৷ এই পারফরম্যান্সেরই ফলেই অ্যান্ডি মারেকে টপকে র্যাোঙ্কিং-এর মগডালে ফিরে এসেছেন ৩১ বছরের রাফা৷ ২০০৮ প্রথমবার এক নম্বরে ওঠেন তিনি৷ এর আগে মোট ১৪১ সপ্তাহ এক নম্বরে ছিলেন নাদাল৷

----
--