নয়াদিল্লি: রাহুল গান্ধী ও তাঁর মা সোনিয়া গান্ধী আয়কর নোটিসকে চ্যালেঞ্জ করে যে আবেদন রেখেছিলেন তা সোমবার দিল্লি হাইকোর্ট খারিজ করল ৷ ওই নোটিসে আয়কর দফতর ২০১১-১২ সালের কর নতুন করে রি-অ্যাসেস করতে চেয়েছিল৷

গত মার্চে দেওয়া আয়কর নোটিসের প্রেক্ষিতে রাহুল, সোনিয়া এবং তাঁদের দলীয় সহকর্মী অস্কার ফার্নান্ডেজের করা আবেদনের প্রেক্ষিতে বেঞ্চ নির্দেশ দেয়৷ কারণ তাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ উঠেছিল তারা ইয়ং ইন্ডিয়া প্রাইভেট লিমিটেডের ২০১১-১২ সালের আয় গোপন করেছিলেন৷

Advertisement

আয়কর দফতর আদালতে জানায়, তারা কর ফাঁকি দিতে এই তথ্য গোপন করেছিলেন৷ রাহুল গান্ধী এবং সোনিয়া গান্ধী হলেন এই ইয়ং ইন্ডিয়া-র মূল শেয়ারহোল্ডার যা অ্যাসেসিয়েটেড জার্নাল অধিগ্রহণ করেছিল এবং ন্যাশনাল হেরাল্ড সংবাদপত্রটি প্রকাশ করে এই সংস্থাটি৷

পড়ুন: কৈলাস থেকে পবিত্র জল মহাত্মার সমাধিতে নিবেদন রাহুলের

এর আগে মার্চে ইয়ং ইন্ডিয়া আদালতে স্থগিতাদেশ দেওয়ার জন্য অনুরোধ জানিয়েছিলেন ২৪৯.১৫ কোটি টাকা সুদ সমেত কর আদায়ের ব্যাপারে যা ২০১৭ সালের ২৭ ডিসেম্বর নোটিস জারি করা হয়েছিল ২০১১-১২ সালের অ্যাসেসমেন্টের উপর আয়কর আইনের ১৫৬ ধারা অনুসারে৷

কোম্পানির পক্ষ থেকে বলা হয়েছিল এটি একটি চ্যারিটেবল ফার্ম এবং কোনও আয় নেই এবং আয়কর দফতর ভুলবশত ২৪৯ কোটি টাকা আয়কর দাবি করেছিল ২০১১-১২ অ্যাসেসমেন্ট বর্ষে৷

১৯ মার্চ দিল্লি হাইকোর্ট ইয়ং ইন্ডিয়াকে নির্দেশ দেয় তাদের বিরুদ্ধে ২৪৯ কোটি টাকার মামলার প্রেক্ষিতে ১০ কোটি টাকা জমা করার৷ ভারতীয় জনতা পার্টির মেতা সুব্রহ্মণ্যম স্বামী অ্যাসেসিয়েটেড জার্নাল প্রতারণা করেছে বলে অভিযোগ করে মামলা করেন৷

----
--