স্বাগত নতুন বছর৷ ইংরাজি নববর্ষে শুভেচ্ছা৷ বর্ষবরণে মিশে থাকে আগামীর পথ চলার ভাবনা৷ এই লক্ষ্যে Kolkata 24×7 নতুন করে ভাবছে৷ এতে মিশে আছে ভবিষ্যৎ দেখার ইচ্ছে৷ আমরা এগিয়ে চলেছি, তাই পিছন ফিরে দেখা নয় আগামীকেই স্বাগত জানাচ্ছি৷ ২০১৮ সালের সম্ভাব্য কিছু ঘটনা তুলে ধরছি৷ বাংলা সংবাদমাধ্যমে এ এক ব্যতিক্রমী প্রচেষ্টা৷ দেশ থেকে বিদেশ, খেলা থেকে মেলা সমস্ত বিষয়ের সব খবর এক ক্লিকে৷ এই প্রতিবেদনে জাতীয় বিভাগের দশদিক

১. প্রধানমন্ত্রী পদপ্রার্থী রাহুল


পরিণত হয়েছেন অনেক৷ তাঁর বক্তব্য এখন সংবাদ শিরোনামও হয়৷ সদ্য দলে মায়ের স্থলাভিষিক্ত হয়েছেন রাহুল গান্ধী৷ কংগ্রেসের সর্বভারতীয় সভাপতি এবার প্রধানমন্ত্রী পদের অন্যতম দাবিদার৷ দেশে কংগ্রেসের হাল বেহাল হলেও, ইউপিএ-র প্রধানমন্ত্রী পদপ্রার্থী হয়ে ২০১৮ থেকে প্রচারে ঝড় তুলতে পারেন রাহুল৷

২. মোদী ম্যাজিক কি টিকবে?


২০১৭-র শেষে গুজরাত বিধানসভা নির্বাচনে আশানুরূপ ফল হয়নি বিজেপির৷ নিজের রাজ্যে টেনেটুনে পাশ করে চিন্তায় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীও৷ ২০১৪ সাল থেকে যে মোদী ম্যাজিক দেখে অভ্যস্ত ভারতবাসী, এর পর তা কি আর অটুট থাকবে? বছর শেষের সেই প্রশ্নরই উত্তরই মিলতে পারে ২০১৮ সালে৷

৩. আধারে কি বাড়বে আঁধার?


ইতিমধ্যেই আধার নম্বর আমাদের রোজনামচায় ঢুকে পড়েছে৷ মোবাইল থেকে ব্যাংক অ্যাকাউন্ট, সব কিছুতেই আবশ্যিক হচ্ছে আধার৷ আগামী বছর আরও অনেক পরিষেবায় বাধ্যতামূলক হতে পারে আধার-সংযোগ৷ ফলে সমস্যা বাড়তে পারে ভারতবাসীর৷ সুপ্রিম কোর্টের সাংবিধানিক বেঞ্চ এখনও আধার মামলার রায় দেয়নি৷ সেই রায় শেষপর্যন্ত কী হয়, ২০১৮-তে সেদিকেও চোখ থাকবে৷

৪. অযোধ্যার মাটিতে ফের জন্মাবেন রাম


রাম মন্দির নির্মাণের অ্যাকশন প্ল্যান বাস্তবায়িত হতে পারে ২০১৮ সালে৷ কেন্দ্রে মোদী, রাজ্যে যোগী জুটির ফায়দা তুলতে পারে রাম মন্দির সমর্থকরা৷ সুযোগ হাতছাড়া না করে আসরে নেমে পড়তে পারে বিশ্ব হিন্দু পরিষদের মতো কট্টরবাদী হিন্দু সংগঠনগুলি৷

৫. গোঁড়ামির আকাশে লাভ জেহাদের মেঘ


প্রেম-ভালবাসাকে কখনও ধর্মের বেড়াজালে বাঁধা সম্ভব হয়নি৷ কিন্তু এই সারসত্যটি বুঝতে নারাজ হিন্দুত্ববাদী সংগঠনগুলি৷ তাই লাভ জেহাদ ঠেকাতে বারবার সচেষ্ট হচ্ছে একাধিক সংগঠন৷ ২০১৮ সালে এই সমস্যা বড় আকার ধারণ করতে পারে৷ ভারতের অনেক সেলিব্রিটিও ভিনধর্মের বিয়ে করেছেন৷ তাঁরাও চলে আসতে পারেন হিন্দুত্ববাদী সংগঠনগুলির আক্রমণের লক্ষ্যে৷

৬. অসহিষ্ণুতা


২০১৪ সালে বিজেপি ক্ষমতায় আসার পর অসহিষ্ণুতা বিতর্ক সবচেয়ে বেশি মাথচাড়া দিয়েছে৷ দেশের নানা প্রান্তে বেশ কয়েকটি এমন ঘটনা সংবাদ শিরোনামে এসেছে৷ আগামী বছরও জারি থাকতে পারে সেই বিতর্ক৷ দেশে গেরুয়া শিবিরের শক্তিবৃদ্ধি অব্যাহত থাকলে ২০১৮ সালে অসহিষ্ণুতার আরও অনেক অভিযোগ উঠতে পারে৷

৭. ভারতে কি ফিরবেন দাউদ


২০১৮ সালে ভারতে ফিরতে পারেন মাফিয়া ডন দাউদ ইব্রাহিম৷ একমাত্র ছেলের মৌলানা হয়ে যাওয়া বা ছোটা শাকিলের মৃত্যু, সব মিলিয়ে হতাশ দাউদ এবার ভারতে ফিরতে পারেন বলে বছর শেষে সবচেয়ে প্রাসঙ্গিক এই জল্পনা৷আর দাউদকে এনে মুম্বই বিস্ফোরণ মামলার শুনানি আবার শুরু করাতে পারলে লাভ বিজেপিরই৷ জাতীয়তাবাদের ধুয়ো তুলে ২০১৯-এর লোকসভা ভোটে ফায়দা তোলার চেষ্টা করতে পারেন মোদী৷

---