সরযূর তীরে হবে মোক্ষলাভ! তৈরি হচ্ছে ‘নব্য অযোধ্যা’

লখনউ: অযোধ্যা নিয়ে বিতর্ক মেটেনি। এরই মধ্যে ‘নব্য অযোধ্যা’ তৈরির সিদ্ধান্ত নিলেন যোগী আদিত্যনাথ। অযোধ্যার রাম মন্দিরের অদূরে তৈরি হবে এক আস্ত শহর। মোক্ষলাভের জন্যই নাকি মানুষ যাবেন সেখানে।

লন্ডনের সংস্থা পিডব্লুসি-র হাত ধরে প্রাণ পাবে যোগীর এই নয়া প্রজেক্ট। আধুনিক শহরের সব সুবিধা থাকবে সেখানে। রাজ্য সরকারের উদ্যোগে উত্তরপ্রদেশের পর্যটন শিল্পের কথা মাথায় রেখেই এই প্রকল্প শুরু হচ্ছে।

১২০০ কোটি টাকা বরাদ্দ করা হয়েছে এই প্রজেক্টের জন্য। ফৈজাবাদ-গোরখপুর ন্যাশনাল হাইওয়ের ধারে ৫০০ একর জায়গা জুড়ে তৈরি হবে এই নতুন টাউনশিপ। সেখানে থাকবে ফাইভ-স্টার হোটেল, বহুতল, জলের ধারে বিলাস বহুল রিসর্ট। আন্ডারগ্রাউন্ড ড্রেনেজের ব্যবস্থা থাকছে সেখানে। গোটা বিশ্বের পর্যটকদের কাছে এই টাউনশিপ আকর্ষণের কেন্দ্র হয়ে উঠবে বলে আশা করছে উত্তরপ্রদেশ সরকার।

- Advertisement -

এবছরেই চালু হবে ওই টাউনশিপ। এই প্রসঙ্গে ফৈজাবাদের ডিস্ট্রিক্ট ম্যাজিস্ট্রেট অনিল কুমার পাঠক জানান, মূল অযোধ্যা এতটাই ঘিঞ্জি এলাকা যে সেখানে নতুন কিছু তৈরি করার সুযোগ কম। তাই এই নতুন টাউনশিপ চালু করা হচ্ছে। একটি উন্নত শহরে যে যে সুবিধা থাকে, তার সবই নব্য অযোধ্যায় থাকবে বলে জানিয়েছে স্থানীয় প্রশাসন।

আর এই নব্য অযোধ্যার সবথেকে উল্লেখযোগ্য বৈশিষ্ট্য হবে মোক্ষলাভের জন্য এক বিশেষ স্থান। নাম, ‘নির্বানা অ্যাবোড’। শেষ জীবনটা যারা অযোধ্যার মাটিতে কাটাতে চান, তাদের জন্য সরযূ নদীর ধারে তৈরি করা হচ্ছে বিশেষ অ্যাপার্টমেন্ট। একটি স্টুডিও অ্যাপার্টমেন্টের দাম হবে ২০ থেকে ২৫ লক্ষ টাকা। যদি কারও কেনার সামর্থ্য না থাকে, তাহলে পাঁচ লক্ষ টাকা দিয়ে অ্যাপার্টমেন্টটা নেওয়া যাবে, মৃত্যুর পর সেটা ফেরৎ পেয়ে যাবে সংশ্লিষ্ট অথরিটি।

Advertisement ---
---
-----