পাহাড় ডাকছে ওঁদের

কাটমান্ডু:  ভয়াবহ ভূমিকম্পে কার্যত ভিত কেঁপে গিয়েছে নেপালে। ভয়াবহ কম্পনের জেরে ধস নেমেছে এভারেস্টে। ঘটনায় এখনও পর্যন্ত ১৪জন শেরপার মৃত্যু হয়েছে। তাতেও ভয় নেই ওঁদের। আগামী মরশুমে ফের অভিযাত্রীদের নিয়ে এভারেস্টে চড়াও হওয়ার দিন গুনছেন শেরপারা।
ইতিমধ্যে বিভিন্ন অভিযাত্রী সংগঠনগুলির কাছে ইমেল ও চিঠি পাঠিয়ে আগামী মরশুমে অভিযাত্রা চালানোর কথা জানিয়েছে শেরপাদের বৃহত্তম সংগঠন নেপালি মাউন্টেনিয়ারিং অ্যাসোসিয়েশন। মে মাসেই নেপাল থেকে দু’তিন সপ্তাহ ধরে এভারেস্ট অভিযানে যান অভিযাত্রীরা। কিন্তু, ভূমিকম্পের জেরে আপাতত এভারেস্ট অভিযান বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত সরকারের।
নেপালি মাউন্টোনিয়ারিং অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি অং শেরিং শেরপা বলেছেন, ভূমিকম্পে বহু দক্ষ শেরপা নিহত হয়েছেন। কিন্তু তার পরেও তাঁরা এই মরশুমে অভিযাত্রীদের নিয়ে এভারেস্ট অভিযানে যাবেন। কেননা এটাই তাদের পেশা, এবং এর সাথে সম্পর্কিত সকল ঝুঁকি মেনে নিয়েই শেরপারা এই পেশা বেছে নিয়েছেন। ফলে, বিপদসংকুল পরিস্থিতিতেও তাঁরা কাজ চালিয়ে যেতে চান।
গতবছর বরফ ধসে ১৬জন শেরপা মারা গিয়েছিলেন। ঘটনায় সরকার এত কম ক্ষতিপূরণ দিয়েছিল যে তাঁরা কার্যত রাগ থেকে এভারেস্টমুখী হননি অন্যান্য শেরপারা। এবারের ভূমিকম্পে এখনও পর্যন্ত এভারেস্টের বরফ ধসে ১৪ জন শেরপা মারা গিয়েছেন। তারপরও শেরপারা অভিযাত্রা করতে চাইছে কারণ, পরপর দু মৌসুম এভারেস্টে না গেলে তাদের রুটিরুজি বিপন্ন হবে। তাছাড়া এভারেস্টে অভিযানের মৌসুম থাকে এই মে মাসেরই দুই তিন সপ্তাহ। ফলে একমাত্র এই সুযোগ তারা হাতছাড়া করতে চাইছে না।

Advertisement
---