ভারতের আশঙ্কা সত্যি করে চিনের সঙ্গে মহড়ায় নেপাল

কাঠমাণ্ডু: আগেই ভারতের সঙ্গে যৌথ মহড়া করবে না বলেই জানিয়ে দিয়েছিল নেপাল। এবার ভারতকে রীতিমত ধাক্কা দিয়ে চিনের সঙ্গে মহড়ার সিদ্ধান্ত নিল চিন।

আগামী ১৭ থেকে ২৮ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত চিনের চেংদুতে চিনা বাহিনীর সঙ্গে যৌথ মহড়ায় অংশ নেবে নেপালের সেনাবাহিনী। এদিকে, সেপ্টেম্বরেই পুণেতে ভারত-সহ ‘বিমস্টেক’ জোটের দেশগুলির যে সেনা মহড়া হচ্ছে, সেখানে যোগ দেবে না বলে আগেই জানিয়ে দিয়েছিল নেপাল।

নেপালের সেনাবাহিনীর মুখপাত্র ব্রিগেডিয়ার জেনারেল গোকুল ভান্ডারী সোমবার এমনটাই জানিয়েছেন। তিনি বলেছেন, এর আগেও চিনের সঙ্গে যৌথ সামরিক মহড়ায় অংশ নিয়েছিল নেপাল। গত বছরের এপ্রিলে। চেংদুতে এ বার যে ১২ দিনের চিন-নেপাল যৌথ সেনা মহড়া শুরু হতে চলেছে ১৭ সেপ্টেম্বর থেকে, তার নাম দেওয়া হয়েছে ‘সাগরমাতা মৈত্রী-২’।

- Advertisement DFP -

গত শনিবার কে পি ওলির মিডিয়া উপদেষ্টা এক প্রেস বিবৃতিতে জানান, বিমসটেক জোটের দেশগুলির যৌথ মহড়া হতে চলেছে পুনেতে৷ সেই মহড়া থেকে নিজেদের নাম প্রত্যাহার করছে নেপাল৷ জুন মাসে এই মহড়ার তথ্য দিয়ে নেপালকে আহ্বান জানিয়েছিল ভারত৷ জানানো হয়েছিল ১০ থেকে ১৬ সেপ্টেম্বর পুনেতে বিমসটেকের দেশগুলির সঙ্গে যৌথ সামরিক মহড়া রয়েছে ৷ তবে সেই আমন্ত্রণ প্রত্যাখ্যান করল নেপাল৷

এই প্রসঙ্গে, প্রতিরক্ষা বিশেষজ্ঞ মেজর জেনারেল এস বি আস্থানা বলেন, সম্প্রতি ভারত বিরোধী মনোভাব তৈরি হয়েছে নেপাল সরকারের৷ ভারত ও নেপালের মধ্যে সাম্প্রতিক কালে শুরু হওয়া মনোমালিন্যের জেরেই নেপালের এই সরে দাঁড়ানোর সিদ্ধান্ত বলে মনে করা হচ্ছে৷ আস্থানা আরও মন্তব্য করেছিলেন, চিনের সঙ্গে নেপালের বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্কও এর পিছনে অন্যতম কারণ হতে পারে৷ অবশেষে ভারতের সেই আশঙ্কাই সত্যি হতে চলেছে।

Advertisement
----
-----