অরুণাচলের অস্তিত্ব কোনোদিনই স্বীকার করি না: চিন

বেজিং: ভারতের সীমা অতিক্রম করে ঢুকে পড়েছে চিনা সেনা। এই খবর প্রকাশ্যে আসার পরই সেকথা অস্বীকার করে চিন জানাল, ‘আমরা কখনও তথাকথিত অরুণাচল প্রদেশের অস্তিত্ব স্বীকার করি না।’

বুধবারই এই খবর প্রকাশ্যে এসেছে যে, গত ডিসেম্বরের শেষের দিকে অরুণাচলের সীমান্ত পেরিয়ে ভারতের মাটিতে ২০০ মিটার ভিতরে ঢুকে গিয়েছিল চিনা সেনা। শিয়াং জেলায় তারা ঢুকে পড়ে বলে জানা গিয়েছে। চিনের বিদেশমন্ত্রকের মুখপাত্র জেং শুয়াং এই প্রসঙ্গে জানিয়েছেন, ‘সীমান্ত ইস্যুতে আমরা বরাবরই খুব পরিষ্কার। আমরা কোনোদিনই তথাকথিত অরুণাচল প্রদেশের অস্তিত্ব স্বীকার করিনা। আর এরকম কোনও ঘটনার কথাও আমাদের জানা নেই।’ সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে একথা জানিয়েছে শুয়াং।

উল্লেখ্য, চিন অরুণাচল প্রদেশকে দক্ষিণ তিব্বতের অংশ বলে দাবি করে।

- Advertisement -

ভারতের সঙ্গে চিনের ৩.৪৮৮ কিলোমিটার দীর্ঘ বিতর্কিত সীমান্ত রয়েছে। সূত্রের খবর, সেই ‘লাইন অফ অ্যাকচুয়াl কন্ট্রোল’ পার করে চিনা সেনাবাহিনী নির্মাণের জন্য প্রয়োজনীয় কিছু জিনিসপত্র নিয়ে ভারতে ঢুকে পড়লে ভারতীয় সেনা বাধা দেয়। চিনের সেনা ওইসব সামগ্রী ফেলেই পালিয়েছে বলে জানা গিয়েছে। এই প্রসঙ্গে চিনের বিদেশমন্ত্রকের বক্তব্য, ‘সীমান্তে শান্তি বজায় রাখতে ভারত ও চিন উভয়েরই কিছু নীতি আছে। সেইসব নীতি মেনে শান্তি বজায় রাখা উচিৎ দুই দেশের।’ পাশাপাশি ডোকলাম প্রসঙ্গে শুয়াং বলেন,’ডোকলাম সমস্যা সুস্থভাবেই সমাধান হয়েছে।’

গত ২২ ডিসেম্বর নয়াদিল্লিতে চিনের নিরাপত্তা উপদেষ্টা ইয়াং জেইচির মুখোমুখি হয়েছিলেন ভারতের এনএসএ অজিত দোভাল। সেইসময় এই অনুপ্রবেশের ঘটনা ঘটেছিল বলে অনুমান করা হচ্ছে।

এর আগে গত বছরের ১৬ জুন ডোকলামে মুখোমুখি হয় দুই দেশের সেনা। আড়াই মাস ধরে চলে সেই সংঘাত। সেইসময়ও চিন বিতর্কিত অংশে রাস্তা তৈরির চেষ্টা করেছিল। অবশেষে, ২০১৭-র ২৮ অগাস্ট সেই সমস্যার সমাধান হয়।

Advertisement
-----