ভাগাড় কান্ডে নয়া মোড়: পচা মাংস পরীক্ষার অযোগ্য

প্রতীকী ছবি

স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: ভাগাড় কান্ডে নয়া মোড়৷ ভাগাড় থেকে বাজেয়াপ্ত করা মাংস এতটাই পচা যে তা পরীক্ষার অযোগ্য৷ বুধবার আলিপুর আদালতে একথা জানিয়ে দিল সিআইডি৷ তবে কলকাতার নারকেল ডাঙা ও মানিকতলা কোল্ড স্টোরেজ থেকে বাজেয়াপ্ত করা মাংসের যে নমুণা সংগ্রহ করা হয়েছিল তার রিপোর্ট এখনও আসেনি বলে এদিন আদালতে জানিয়েছেন সরকারি আইনজীবী৷

সম্প্রতি ভাগাড়ের পচা মাংস কারবারের বিষয়টি প্রকাশ্যে আসে৷ তোলপাড় হয় রাজ্য রাজনীতি৷ এরপরই কলকাতার নিউটাউন সহ একাধিক জায়গা থেকে পচা মাংসের হদিশ মেলে৷ রাজ্য পুলিশের হাত থেকে মামলার তদন্তভার বর্তায় সিআইডির হাতে৷ তদন্তে নেমে ভাগাড়ের পচা মাংসের নমুণা সংগ্রহ করেন গোয়েন্দারা৷ এদিন আদালতে সরকারি আইনজীবী বলেন, ‘‘বাজেয়াপ্ত করা মাংসের নমুণা পরীক্ষাগারে পাঠানো হয়েছিল৷ কিন্তু সেগুলি এতটাই পচা যে তা পরীক্ষার অযোগ্য বলে পরীক্ষাগার থেকে স্পষ্টভাবে রিপোর্টে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে৷’’

বাজেয়াপ্ত করা মাংসের নমুণা পরীক্ষার জন্য তা পাঠানো হয় সরকারি ল্যাবরেটরিতে৷ আদালত সূত্রের খবর, এদিন আদালতে সিআইডির আইনজীবী জানিয়ে দেন, ল্যাবরেটরি থেকে যে রিপোর্ট পাঠানো হয়েছে, তাতে স্পষ্টভাবে বলা হয়েছে- বাজেয়াপ্ত করা মাংসের নমুণা এতটাই খারাপ যে তা পরীক্ষা করার অযোগ্য৷ এমনকি যে গাড়িতে করে পচা মাংস পাচার করা হত, বাজেয়াপ্ত করা সেই গাড়িটিও পাঠানো হয়েছিল পরীক্ষাগারে৷ গাড়ির গায়ে লেগে থাকা মাংসও পরীক্ষা করে ফরেনসিক বিশেষজ্ঞরা জানিয়ে দেন, যে সেগুলি এতটাই পচা যে তা পরীক্ষা করার অযোগ্য ৷তবে নারেকলডাঙা ও মানিকতলা কোল্ড স্টোরেজ থেকে বাজেয়াপ্ত করা মাংসের যে নমুণা সংগ্রহ করা হয়েছিল, তার কি রিপোর্ট আদালতে জমা পড়ে সেদিকে তাকিয়ে সকলে৷

- Advertisement -

প্রসঙ্গত, ভাগাড় কান্ডের পর প্রকাশ্যে এসেছিল কিভাবে রাজ্যের বিস্তৃর্ণ এলাকায় পচা মাংসের কারবার চলছে৷ খোদ কলকাতার নিউ টাউন এলাকা থেকেও পচা মাংসের কারবারের বিষয়টি সামনে আসায় চাঞ্চল্য ছড়ায়৷ এরপরই জেলা প্রশাসন, স্বাস্থ্য দফতর ও পুরসভা জেলায় জেলায় বিভিন্ন মাংসের দোকান ও রেঁস্তোরাতে তল্লাশি চালান৷ তাতে হাওড়া, হুগলি, শিলিগুড়ি সহ একাধিক জেলার বিভিন্ন হোটেল থেকে বহু দিনের বাসি মাংস ফ্রিজ থেকে উদ্ধার হয়৷ তদন্তে নেমে গোয়েন্দারা বুঝতে পারেন, এক আধ দিন নয়, দিনের পর দিন ধরেই চলছিল পচা মাংসের এই কারবার৷ ইতিমধ্যে ভাগাড় কান্ডে বেশ কয়েকজনকে গ্রেফতারও করেছেন গোয়েন্দারা৷ ধৃতদের জেরা করে গোয়েন্দারা জানতে চাইছেন, কতদিন ধরে এই পচা মাংসের কারবার চলছিল৷

Advertisement ---
---
-----