রাষ্ট্রসংঘের ফের কাশ্মীর ধাক্কা

নিউইয়র্ক: রাষ্ট্রসংঘের মানবাধিকার কমিশনে ফের কাশ্মীর কটাক্ষ৷ সমকামীতার পক্ষে ভারতের ঐতিহাসিক পদক্ষেপ যেমন প্রশংসনীয়, তেমনই কাশ্মীর নিয়ে প্রশাসনের নির্বিকার থাকা আন্তর্জাতিক ভাবে নিন্দনীয়৷ কাশ্মীর ইস্যুতে ভারতকে এভাবেই কটাক্ষ রাষ্ট্রসংঘের৷ ইউএনের সাফ বক্তব্য, কাশ্মীরের অশান্তি ঠেকাতে অর্থবহ পদক্ষেপ নিক ভারত৷ আর কতদিন উপত্যকাবাসী মানবাধিকার লঙ্ঘনের কোপে পড়বে৷

রাষ্ট্রসংঘের মানবাধিকার হাই কমিশনার মিশেল ব্যাকলেট বলেন, ‘কাশ্মীরের মানুষের বাঁচার, বক্তব্য রাখার সমান অধিকার রয়েছে৷ সেখানে কেন তাঁদের প্রতি পদে পদে অপমানস লাঞ্চনা, এমনকি মৃত্যুর মুখোমুখি হতে হচ্ছে? তাঁদের নূন্যতম সম্মান দেওয়া হোক৷’ রাষ্ট্র সংঘের মানবাধিকার বিভাগের নতুন হাই কমিশনার তিনি৷

৩৯ তম সেশনের বক্তব্যে কাশ্মীর ইস্যুকেই তুলে ধরেন ব্যাকলেট৷ তাঁর আগে হাই কমিশনার ছিলেন জায়েদ হোসেন৷ যিনি কাশ্মীরে মানবাধিকার লঙ্ঘনের অভিযোগ বার বার তুলে রাষ্ট্রসংঘকে পদক্ষেপ নেওয়ার কথা বলেন৷ সোমবার সেই পদক্ষেপ নেওয়ার কথাই ঘোষণা করলেন মিশেল৷ তিনি জানান, কাশ্মীরের সার্বিক পরিস্থিতি পরিদর্শনে প্রতিনিধি পাঠাবে রাষ্ট্রসংঘ৷

- Advertisement -

জুন মাসেই কাশ্মীর নিয়ে রাষ্ট্র সংঘে রিপোর্ট পেশ করেছিলেন হুসেন৷ কাশ্মীরে মানবাধিকার লঙ্ঘনের বিরুদ্ধে আন্তর্জাতিক মানের তদন্ত হোক বলে দাবি করেছিলেন তিনি৷ সেই তদন্তের কথা জানিয়ে ফের একবার কাশ্মীর নিয়ে কড়া বক্তব্য রাখে রাষ্ট্র সংঘ৷ অবশ্য, জুন মাসে কাশ্মীর নিয়ে পেশ করা রিপোর্টের তীব্র বিরোধিতা করে ভারত৷ বিদেশ মন্ত্রক সূত্রে বলা হয়,কাশ্মীর ভারতের অবিচ্ছেদ্য অঙ্গ৷ এই ধরণের রিপোর্ট দেশের সার্বভৌমত্বের ক্ষতি করছে৷

Advertisement
----
-----