রিও ডি জেনেইরো: যাবতীয় সংশয়ের অবসান না হলেও অন্তত ইতিবাচক সংকেত পাওয়া গেল ব্রাজিলিয়ান ফুটবল ফেডারেশনের তরফে৷ পায়ের চোটে গত ফেব্রুয়ারি থেকে মাঠের বাইরে রয়েছেন ব্রাজিলিয়ান তারকা নেইমার৷ তাঁর বিশ্বকাপ খেলা নিয়ে স্বাভাবিকভাবেই বড়সড় প্রশ্নচিহ্ন দেখা দিয়েছিল৷ সেই প্রশ্নচিহ্নটাকে প্রাথমিকভাবে দূরে সরিয়ে দেন ব্রাজিলের জাতীয় নির্বাচকরা৷ রাশিয়া বিশ্বকাপের জন্য ২৩ সদস্যের যে দল ঘোষণা করা হয়েছে, তাতে নাম রয়েছে নেইমারের৷

চোটের জায়গায় অস্ত্রোপচারের পর বেশ কিছুদিন বিশ্রামে ছিলেন পিএসজি স্ট্রাইকার৷ সম্প্রতি ফিটনেস ট্রেনিংয়ে ফিরেছেন তিনি৷ পুরোদস্তুর অনুশীলন শুরু না করলেও ফুটবল পায়ে মাঠেও দেখা যাচ্ছে তাঁকে৷ আগামী সপ্তাহ থেকেই বিশ্বাকাপের জন্য প্রস্তুতি নেওয়া শুরু করতে নামবেন নেইমার৷ তার আগেই জাতীয় দলে জায়গা নিশ্চিত হয়ে যাওয়ায় বিশ্বকাপে চেনা ছন্দে নেইমারকে দেখার বিষয়ে আশাবাদী ব্রাজিল সমর্থকরা৷

Advertisement

ব্রাজিলের টিম ম্যানেজমেন্ট আশা করছে আগামী সপ্তাহ থেকে শুরু হতে য়াওয়া জাতীয় দলের প্রস্তুতি শিবিরে ফিট নেইমারকেই পাওয়া যাবে৷ এমনকি ৩ জুন লিভারপুলে ক্রোয়েশিয়ার বিরুদ্ধে প্রীতি ম্যাচেও নেইমার খেলতে নামবেন বলেও আশাবাদী ব্রাজিল ফুটবল কনফেডারেশন৷

নেইমারকে দলে রাখা হলেও বাদ পড়েছেন আহত দানি আলভেজ৷ তাঁর পরিবর্তে সুযোগ পেয়েছেন ম্যান সিটির ডিফেন্ডার দানিলো৷ চমক হিসাবে দলে ঢুকেছেন শাখতারের মিডফিল্ডার ফ্রেড৷

২৩ সদস্যের ব্রাজিল স্কোয়াড:

গোলকিপার: অ্যালিসন (রোমা), ক্যাসিও (কোরিনথিয়ান্স), এডারসন (ম্যান সিটি)৷

ডিফেন্ডার: দানিলো (ম্যান সিটি), ফ্যাগনার (কোরিনথিয়ান্স), মার্সেলো (রিয়াল মাদ্রিদ), ফিলিপ লুইস (অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদ), মিরান্দা (ইন্টার মিলান), মারকুইনহোস (পিএসজি), থিয়াগো সিলভা (পিএসজি), জেরোমেল (গ্রেমিও)৷

মিডফিল্ডার: ক্যাসেমিরো (রিয়াল মাদ্রিদ), ফার্নান্দিনো (ম্যান সিটি), পাউলিনহো (বার্সেলোনা), রেনাতো অগস্টো (বেজিং গৌয়ান), ফ্রেড (শাখতার), ফিলিপ কুটিনহো (বার্সেলোনা), উইলিয়ান (চেলসি)৷

ফরোয়ার্ড: নেইমার (পিএসজি), গ্যাব্রিয়েল জেসুস (ম্যান সিটি), রবার্তো ফিরমিনো (লিভারপুল), ডগলাস কোস্তা (জুভেন্তাস), তাইসন (শাখতার)৷

----
--