মস্কো: তাঁর প্লে-অ্যাক্টিং নিয়ে তোলপাড় ফুটবল দুনিয়া৷ কখনও ডিফন্ডারের আলতো চ্যালেঞ্জেই মাটিতে গড়িয়ে পড়ছেন, কখনও আবার সাইডলাইনের ধারে ডান পা নিয়ে যন্ত্রণায় কাতরাচ্ছেন৷ চলতি বিশ্বকাপে সেলেকাওদের হয়ে গোল করে তিনি যত না চর্চায় তাঁর চেয়েও বেশি আলোচনার কেন্দ্রে তাঁর ‘অভিনয়’৷ তিনি ব্রাজিলের ‘ওয়ান্ডার কিড’ নেইমার৷

এই নেইমারকে আর ‘কিড’ বলা চলে কিনা, সেই নিয়ে ইতিমধ্যেই প্রশ্ন তুলতে শুরু করেছেন সমর্থকরা৷ নেইমারকে পাকা অভিনেতা বলছেন অনেকে৷ তাঁদের মত, অভিনয় জগতে নেইমার মোটেও ‘কিড’ নন৷ অভিনয়টা তিনি ভালই জানেন৷

এহেন নেইমারকে নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রতিদিনই নতুন নতুন ট্রোলড ভিডিও’র আমদানি শুরু হয়েছে৷ কোথাও নেইমার তাঁর সতীর্থদের আলতো ছোঁয়াতেই মাটিতে লুটিয়ে পড়ছেন৷ কোথাও আবার নেইমার পাহাড়-পর্বত, জাতীয় সড়কে গড়াতে গড়াতে মাঠের সবুজ ঘাসে আছড়ে পড়ছেন৷ এখানেই শেষ নয়, নেইমারের প্লে-অ্যাক্টিং দেখে সমর্থকরা টিপ্পনি কেটে সোশ্যাল মিডিয়ায় লিখেছেন, ‘এই অভিনেতাকে অস্কার মঞ্চে না দেখলে অবাক হব৷’
কিংবদন্তি মারাদোনা অবশ্য নেইমারকে নিয়ে অন্য কথা শুনিয়েছেন৷ ব্রাজিল-মেক্সিকো ম্যাচ দেখার পর আর্জেন্তাইন তারকা বলেছেন, ‘প্রথমে নেইমারের যন্ত্রণার ছবি দেখে কান্না পেয়েছিল, পরে সেই নেইমারকেই মাঠে ফুল ফোটাতে দেখে চমেক গেলাম৷’

চলতি বিশ্বকাপে নেইমারের প্লে-অ্যাক্টিং নিয়ে ফুটবলমহলে বিস্তর আলোচনা চলছে৷ ফুলের আঘাতে মুর্ছা যাওয়ার মতো প্রতিপক্ষ ফুটবলারদের সামান্য ছোঁয়াতেই তাঁর বার বার মাঠে পড়ে যাওয়া ও যন্ত্রণায় কাতরানোর অভিনয় নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় রসিকতার ঝড় বইছে৷ তবে প্লে-অ্যাক্টিয়ের পাশাপাশি নিঃশব্দে কাজের কাজ করে যাচ্ছেন ব্রাজিলিয়ান তারকা৷ দলকে বিশ্বকাপের কোয়ার্টার ফাইনালে তুলতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা নিয়েছেন তিনি৷ মেক্সিকোর বিরুদ্ধে তাঁর গোলের পরেই বিশ্বকাপে সর্বকালীন রেকর্ডও গড়েছে ব্রাজিল৷ সব মিলিয়ে বিশ্বকাপের ইতিহাসে সব থেকে বেশি গোল এখন ব্রাজিলেরই৷ এছাড়াও বিশেষ কয়েকটি ক্ষেত্রে বিশ্বকাপে নেইমার ছাপিয়ে গিয়েছেন লিওনেল মেসি ও ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডোকেও৷

চলতি বিশ্বকাপে মোট চারটি গোল করেছেন রোনাল্ডো৷ মেসি একটি৷ সেখানে এ পর্যন্ত নেইমারের গোল সংখ্যা দুই৷ এই নিরিখে মেসিকে টপকালেও রোনাল্ডোর থেকে পিছিয়ে রয়েছেন নেইমার৷ তবে গোল পিছু গড় শটে দুই কিংবদন্তিকেই পিছনে ফেলে দিয়েছেন ব্রাজিলিয়ান স্ট্রাইকার৷ আসলে মেসি ও রোনাল্ডো বিশ্বকাপে সব মিলিয়ে ছ’টি গোল করেছেন যতগুলো শটে, তার থেকে কম শটে ছ’টি গোল করে ফেলেছেন নেইমার৷

----
--