স্টাফ রিপোর্টার, মালদহ: ১১ বছরের এক মানসিক ভারসাম্যহীন কিশোরতার পুরুষাঙ্গে ছুঁচ ঢুকিয়ে ফেলায় ঘটল বিপত্তি৷ প্রায় ২৪ ঘণ্টা ধরে ছুঁচটি ওই কিশোরের পুরুষাঙ্গে ছিল৷ এরপরই শুরু হয় যন্ত্রণা৷ যন্ত্রণায় কাতরাতে থাকে ১১ বছরের মানসিক ভারসাম্যহীন কিশোর৷

আরও পড়ুন: প্রধানমন্ত্রীর শুভেচ্ছা নিয়ে স্বপ্নার ঘরে আলুওয়ালিয়া

এদিকে বাড়িতে ঘটনার বিস্তারিত সঠিক ভাবে বোঝাতে না পেরে আরও কষ্ট পেতে থাকে ওই কিশোর৷ পরে সমস্যা সমাধানে স্থানীয় স্বাস্থ্য কেন্দ্রে ছুটে যান ওই কিশোরের পরিবার। সময় নষ্ট না করে হাসপাতালের চিকিৎসক তৎক্ষণাৎ ওই কিশোরকে মালদহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভরতি করার নির্দেশ দেন৷ সেই পরামর্শ অনুযায়ী শুক্রবার সন্ধ্যায় মালদহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভরতি করা হয় তাকে।

সেখানে মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের ন’জন বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের দল ওই কিশোরের চিকিৎসা শুরু করে। কিন্তু কোনও উপায় না থাকায় অস্ত্রোপচারের সিদ্ধান্ত নেয় চিকিৎসকের দল৷ শনিবার সকালে অস্ত্রোপচার হয় ওই কিশোরের। এই প্রসঙ্গে মালদহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের সহকারী অধ্যক্ষ অমিত দাঁ বলেন, ‘‘এমন বিরল অস্ত্রোপচারে সফল হয়েছে মেডিক্যাল কলেজের চিকিৎসকের দল। এখন কিশোরটি বিপদমুক্ত।’’

আরও পড়ুন: ‘ছেলেকে সুস্থ করতে পারলাম না, তাই আত্মহত্যা করলাম’

https://youtu.be/hz2wXw1ikFw

----
--