“গোহত্যা” ঘিরে বিক্ষিপ্ত সংঘর্ষে জড়িত বেশ কয়েকজন ধৃত

প্রতীকী ছবি

রাঁচি: ইদের দিন হয়েছিল সংঘর্ষ। অভিযোগ গোহত্যা বন্ধ করার জন্য প্রশাসনের অতিরিক্ত সক্রিয়তায় ছড়ায় সংঘর্ষ। আক্রান্ত হয় পুলিশ। ঝাড়খণ্ডের এই ঘটনায় পাকুড় জেলার নয়জনকে গ্রেফতার করা হল। এর জেরে পশ্চিমবঙ্গের বীরভূম জেলা লাগোয়া পাকুড় সন্ত্রস্ত। তবে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আছে বলেই জানিয়েছেন পাকুড়ের ডিএসপি দিলীপকুমার ঝা।

২০১৫ সাল থেকে ঝাড়খন্ডে বিজেপি ক্ষমতায় আসার পর গোহত্যা নিষিদ্ধ। ইদ-উল-আজহার আগে ১৮ তারিখ ঝাড়খণ্ড সরকার সমস্ত ডেপুটি কমিশনারদের নজর রাখতে নির্দেশ দেন, রাজ্যের কোনও জেলায় যেন গোহত্যা না হয়। এরপরই ছড়াতে থাকে উত্তেজনা।

পুলিশকে আক্রমণ ও পকিস্তানের সমর্থনে স্লোগান দেওয়ার জন্য পুলিশ সুত্রে খবর, বুধবার সন্ধ্যায় মহেশপুর থানার সামনে গ্রামবাসী ও পুলিশের মধ্যে একটি বাদানুবাদের সময় একদল মানুষ পুলিশকর্মীদের আক্রমণ করে ও পাকিস্তানের সমর্থনে শ্লোগান দেয়। পাকুড় ডেপুটি কমিশনার দিলীপকুমার ঝা’র নেতৃত্বে পুলিশের একটি দল গ্রামে পৌঁছলে গ্রামবাসীদের সাথে তাদের সংঘর্ষ বাঁধে। ঘটনায় ডেপুটি কমিশনার,১৩ জন পুলিশকর্মী ও গ্রামবাসীসহ মোট ২৪ জন আহত হয়েছেন।

Advertisement ---
---
-----