ছিঃ! দুই ভাইয়ের লালসার শিকার তৃতীয় শ্রেণির ছাত্রী

ছবি- প্রতীকী

হায়দরাবাদ: বাইরে মহিলাদের নিরাপত্তা নিয়ে হামেশাই প্রশ্ন উঠেছে, কিন্তু বাড়ির চার দেওয়ালের মধ্যে, নিজের পরিবার পরিজনদের মধ্যেও যে সে নিরাপদ নয়, একের পর এক ঘটনা যেন সেই কথাও কিন্তু প্রমাণ করছে৷ আট থেকে আশি পুরুষের লালসার শিকার মহিলারা৷ রেহাই পেল না নয় বছর বয়সী এক নাবালিকাও৷ হায়দরাবাদের বানজারা হিলসে এই নক্ক্যারজনক ঘটনা ঘটেছে৷

পুলিশ সূত্রে খবর, প্রায় এক সপ্তাহ আগে চকোলেটের লোভ দেখিয়ে নাবালিকাকে বাড়ির মধ্যে ডেকে এনে একের পর এক ধর্ষণ করে দুই ভাই শ্রীকান্ত(২২) এবং ইয়েলেশ(১৮)৷ ধর্ষণের পর ওই নাবালিকা যাতে মুখ না খোলে তার জন্য ভয়ও দেখায় তারা৷ তবে এই নির্যাতনের ঘটনা ঘটার সময় নাবালিকার চিৎকার প্রতিবেশীরা শুনতে পেয়ে তার বাবা-মা-কে জানায়৷ মেয়েটির অভিভাবকেরা পুলিশের দ্বারস্থ হয়৷ নির্যাতিতাকে চিকিৎসার জন্য ভরোসা সেন্টারে পাঠানো হয়৷ তৃতীয় শ্রেণির ওই ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে, বানজারা হিলস্ ইনস্পেক্টর কে শ্রীনিবাস পকসো আইন, আইপিসি ৩৭৬ ধারায় অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করে৷

পড়ুন: স্পা সেন্টারে সেক্স র‍্যাকেটের রমরমা

- Advertisement -

অন্যদিকে হায়দরাবাদে, সুপারমার্কেটের এক কর্মী জি যোগেশ তার সহকর্মীকে ধর্ষণের অভিযোগে গ্রেফতার হয়৷ ১৯ বছরের ওই কিশোরীর অভিযোগ, যোগেশ তাকে বাড়িতে ডেকে এনে ধর্ষণ করে৷ তবে দুজনের মদ্যে প্রেমের সম্পর্ক ছিল, এবং তাঁরা বিয়ে করবে বলেও শোনা যায়৷ কিন্তু ওই কিশোরীকে বাড়িতে ডেকে এনে তাকে ধর্ষণ করে এবং বিয়ের করতেও অস্বীকার বলে অভিযোগ ওই যুবকের বিরুদ্ধে৷ যোগেশের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করে নির্যাতিতা৷

Advertisement ---
---
-----