জয়পুর: খাঁ খাঁ করছে হাসপাতাল চত্ত্বর৷ গুটি কয়েক কর্মী ঘুরে বেড়াচ্ছেন শুধু৷ রয়েছেন সাফাই কর্মীরাও৷ খালি বেডগুলোও৷ কারণ সেই ২০১২ সাল থেকে এই হাসাপাতালে নাকি কোনও রোগীই ভরতি হননি৷ এরকমই ছবি রাজস্থানের আরও ৪০টি আয়ুর্বেদ হাসপাতালের৷ বলছে ক্যাগ রিপোর্ট৷

এখানেই শেষ নয়, রাজ্য জুড়ে ৬৪৫টি আয়ুর্বেদ স্বাস্থ্যকেন্দ্রে কোনও মেডিক্যাল অফিসার নিয়োগ করা হয়নি গত পাঁচ বছরে৷ কম্পট্রোলার অ্যান্ড অডিটর জেনারেল রিপোর্ট জানাচ্ছে ২০১২ থেকে ২০১৭ সাল পর্যন্ত খরচ দেখানো হয়েছে ২৬৫৫.৮৯ কোটি টাকা!

Advertisement

পড়ুন: রক্তের রিপোর্টে ডেঙ্গু, মৃত্যুর শংসাপত্রে লেখা হল সেপসিস

এই বিপুল পরিমাণ টাকা কোথায় গেল? প্রশ্ন তুলছে ক্যাগ রিপোর্ট৷ বলা হয়েছে এই টাকার ৯৫.৪৯ শতাংশই খরচ হয়ে গিয়েছে৷ বেতন দিতে ও ভাতা দিতেই নাকি এই পরিমাণ টাকা খরচ করা হয়েছে৷ গত সপ্তাহে রাজস্থানের বিধানসভার অধিবেশনে এই তথ্য পেশ করা হয়৷ বলা হয় গত পাঁচ বছরে ৪০টি হাসপাতালে কোনও রোগী আসেনি, অথচ এই টাকা খরচ হয়েছে বলে জানানো হয়েছে৷

এমনকী দুর্নীতি হয়েছে নিয়োগেও৷ বলা হয়েছে ২০১৭ সালের মার্চ মাস পর্যন্ত কোনও নিয়োগ হয়নি৷ অথচ তাদের বেতন ও ভাতা দেখানো হয়েছে৷ ৩৫৭৭টি স্বাস্থ্যকেন্দ্রের মধ্যে ৬৪৫টিতে কোনও মেডিক্যাল অফিসার নেই৷ আবার ৪০টি ডিসপেনসারিতে দুজন করে মেডিক্যাল অফিসার রয়েছে, যেখানে একজন করে থাকার কথা৷

----
--