পরমাণু ছেড়ে ফুল হাতে নিয়েই প্যারেডে হাঁটল কিমের দেশ

পিয়ংইয়ং: অবাক কাণ্ডই বটে৷ পরমাণু উৎক্ষেপণকে সামনে রেখেই যে দেশটা আমেরিকার সঙ্গে টেক্কা দিচ্ছে, সেই দেশই ফুলের তোড়া হাতে সেনা প্যারে়ডে৷ কিমের দেশ একেবারেই ব্যতিক্রমী মহিমায় শান্তির বার্তা দিতেই মহা সমারোহে করে ফেলল সেনা প্যারেড৷ দেশের ৭০ তম স্বাধীনতা দিবসে অন্য রূপে উত্তর কোরিয়া৷ নানা রঙের ফুল,বেলুন হাতে স্বাধীনতা উদযাপন করলেন সেনারা৷ ছন্দে ছন্দে চলল প্যারেডও৷

শান্তি ও আর্থিক উন্নয়নের বার্তা নিয়েই উত্তর কোরিয়ার এবারের সেনা প্যারেড৷ কিম জং উন স্যালুট করতেই হাজার হাজার সেনার এক ধাচে মিছিল, প্রতিরক্ষার প্রমাণ হিসেবে ছিল শুধুই ট্যাংক৷ যদিও গত বছরের চিত্রটা ছিল অন্যরকম৷ ৬৯ তম স্বাধীনতা দিবস উদযাপনে উত্তর কোরিয়া দামামা ফাটিয়েছিল বেশ৷ একের পর এক মিশাইল উৎক্ষেপনের মাধ্যমে নিজেদের শক্তি জানান দিয়েছিল এই দেশ৷ তার আগের বছরও শক্তিশালী প্রমাণে নিজেকে এগিয়ে রাখতে স্বচেষ্ট হয় উত্তর কোরিয়া৷ এবার সেই ছবিরই উলোট পুরান৷

কিমের নির্দেশেই এবার পরমানু উৎক্ষেপণ প্রক্রিয়া স্বাধীনতা উদযাপনে বাদ রাখা হয়৷ রাষ্ট্রীয় বার্তায় কিম জানান, দক্ষিন কোরিয়া, আমেরিকার সঙ্গে নিরস্ত্রীকরণ চুক্তি স্থাপনের পরই পিয়ংইয়ং শান্তির পথেই হাঁটবে৷ পাশপাশি, তিনি জানান, কোরিয়ার তরুণ প্রজন্ম বেশি করে সেনাবাহিনীতে যোগ দিক৷

- Advertisement -

১৯৫০-৫৩ সালে দুই কোরিয়ার যুদ্ধ, তারপর সংঘর্ষবিরতি চুক্তি৷ এরপর দীর্ঘ শত্রুতাও পালন করেছে দুই দেশে উত্তর ও দক্ষিণ কোরিয়া৷ বর্তমানে দুই কোরিয়ার কূটনৈতিক পরিস্থিতিও অনেকটাই স্থিতিশীল৷ আগামী ১৮-২০ সেপ্টেম্বরই নিরস্ত্রীকরণ প্রসঙ্গে ফের বৈঠকে বসবেন কিম-মুন৷ স্বাধীনতা দিবসে ফুলের গোছা হাতে সেই ঘোষণাও করলেন কিম৷

Advertisement ---
-----