ভারত-আমেরিকা নয়! ভয়ঙ্করতম শত্রুর বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা করল চিন

বেজিং: অস্ত্র আর সেনাবাহিনীর আধুনিকীকরণে বিশ্বে অনেকটাই এগিয়ে চিন। এমনকি চিনের যুদ্ধবিমান আর অস্ত্র চ্যালেঞ্জ দেয় বিশ্বের তাবড় দেশকে। কিন্তু সেই চিনেরও রয়েছে এক শত্রু, যা চিনা সেনার কামানকেও ভয় পায় না। এবার সেই শত্রুর বিরুদ্ধেই যুদ্ধ ঘোষণা করল চিন।

চিনের সংবাদমাধ্যম বলছে, একেবারে অত্যাধুনিক মিলিটারি গ্রেড র‍্যাডার তৈরি করা হচ্ছে তাদের মারতে। সব যুদ্ধ মিলিয়ে যত মানুষের মৃত্যু হয়েছে, তার থেকে বেশি মানুষের মৃত্যু হয়েছে এই শত্রুর হাতে। চিন সেনার মাথায় হাত ফেলে দেওয়া সেই শত্রুর নাম মশা।

হ্যাঁ, চমকে ওঠার মত তো বটেই। তবে এটাই সত্যি। অন্যদের ভব দেখালেও একমাত্র মশাকেই কোনোভাবে বাগে আনতে পারছে না চিন। মশার বিরুদ্ধে এবার যুদ্ধ ঘোষণা করল চিন। তার জন্য নতুন অস্ত্র তৈরি করছে চিনের বেজিং ইন্সটিটিউট অফ টেকনোলজি। আর সেই অস্ত্রে ২ কিলোমিটারের মধ্যে থাকা প্রত্যেকটা মশাকে খতম করা সম্ভব হবে। এটি একটি ইলেক্ট্রোম্যাগনেটিক ওয়েভ তৈরি করবে, যা প্রত্যেকটা মশাকে খুঁজে বের করে মারবে। আর র‍্যাডারে পৌঁছে যাবে সেই মশার সম্পর্কে সব তথ্য। মশাটির প্রজাতি, লিঙ্গ, গতি ইত্যাদি।

- Advertisement -

মিসাইল ডিটেকশন সিস্টেমের মতই কাজ করবে এই প্রযুক্তি। এই প্রযুক্তি মশা মারতে একটি গেম চেঞ্জার হিসেবে কাজ করবে বলেই মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা। এই পরীক্ষার জন্য চিন খরচ করছে ১২.৯ মিলিয়ন মার্কিন ডলার।

Advertisement ---
---
-----