তিরুবনন্তপুরম: ধর্ষণের পর এবার সন্ন্যাসিনীর দেহ উদ্ধারের ঘটনায় আবার শিরোনামে কেরল৷
সন্ন্যাসিনীকে ধর্ষণের ঘটনার পর এবার আরেক সন্ন্যাসিনীর দেহ ঘিরে চাঞ্চল্য ছড়াল কেরলের পাথানাপুরামে। অভিযোগ, ৫৪ বছর বয়সী ওই সন্ন্যাসিনীর দেহ কেরলের একটি মঠের কুঁয়োতে ভাসতে দেখা গেলে পুলিশ এসে দেহটি উদ্ধার করে।

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে,৫৪ বছর বয়সী ওই সন্ন্যাসিনী সুসান, পাথানাপুরামের সেন্ট স্টিফেন স্কুলে শিক্ষকতা করতেন। এদিন প্রায় সকাল ৯টা নাগাদ মাউন্ট টাবোর মঠের কর্মীরা কুঁয়োর পাশে রক্তের দাগ দেখতে পান। এরপরই কুঁয়োর জলে ভাসতে দেখা যায় ওই সন্ন্যাসিনীর দেহ। স্কুল ও মঠ দুটিই পরিচালিত হয় কোট্টায়ামের মালাঙ্কারা চার্চের মাধ্যমে।

আরও পড়ুন: ২০ ফেব্রুয়ারি শুরু পরবর্তী Aero India প্রদর্শনী

প্রায় ১২ বছর ধরে সেন্ট স্টিফেন স্কুলের শিক্ষিকা ছিলেন তিনি। এখনও ধোঁয়াশার মধ্যে রয়েছে তাঁর মৃত্যুর কারণ।
প্রসঙ্গত, গতকাল কেরলের এক সন্ন্যাসিনীকে ধর্ষণের অভিযোগে জলন্ধর এলাকার রোমান ক্যাথলিক বিশপ ফ্রাঙ্কো মুলাক্কেলকে গ্রেফতারির দাবিতে পথে নামে কোচির সন্ন্যাসিনীরা। যুগ্ম খ্রিষ্টান কাউন্সিলের ডাকে শহরের হাই কোর্ট জাঙ্কশনের বাসস্টপের কাছে প্রতিবাদে মুখর হন তাঁরা।

সেখানেও ঘটনার কেন্দ্রস্থল কেরলের একটি আশ্রম। সেখানেই বিশপ মুলাক্কেল এক সন্ন্যাসিনীকে ধর্ষণ করেন বলে অভিযোগ।অভিযোগ,ঘটনার পর ৭২দিন অতিক্রান্ত হলেও আক্রান্ত ওই সন্ন্যাসিনীর অভিযোগের ভিত্তিতে ব্যবস্থা নেয়নি কেউ। চার্চ, পুলিশ,প্রশাসন সুবিচারের আশায় সবার দরজায় কড়া নাড়লেও আদতে কিছুই লাভ হয়নি।

----
--