স্টাফ রিপোর্টার, রামপুরহাট: কর্তব্যে গাফিলতির অভিযোগে শিশু মৃত্যুর ঘটনায় এক নার্সের বিরুদ্ধে তদন্ত শুরু করল হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ৷ ঘটনাটি রামপুরহাট স্বাস্থ্য জেলা হাসপাতালের। অভিযোগ, রবিবার গভীর রাতে হাসপাতালের শিশু ওয়ার্ডে ভরতি থাকা একটি শিশুর অক্সিজেনের নল খুলে যায়৷ কর্তব্যরত নার্সকে বারংবার বলা হলেও তিনি কর্ণপাত করেননি বলে অভিযোগ৷ উলটে, ব্যস্ত ছিলেন মোবাইলে৷ তারই জেরে শিশুটির মৃত্যু হয়েছে বলে অভিযোগ৷ ঘটনার জেরে রাতেই তীব্র উত্তেজনা ছড়ায় হাসপাতাল চত্বরে৷

হাসপাতাল সুপার সুবোধ মণ্ডল বলেন, ‘‘অভিযোগর ভিত্তিতে তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে৷ তদন্তে দোষি প্রমাণিত হলে অভিযুক্ত নার্সের বিরুদ্ধে কড়া পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে৷’’ হাসপাতাল সূত্রে জানা গিয়েছে, মৃত মাস সাতেকের শিশুকন্যার নাম বিনীতা ভদ্র। বাড়ি তারাপীঠ থানার সাহাপুর গ্রামের পালপাড়ায়।

আরও পড়ুন: কিডনি ও শ্বাসকষ্টের সমস্যা নিয়ে হাসপাতালেই মাধ্যমিক পরীক্ষা দিল শুভজিৎ

শিশুটির বাবা পরাণ ভদ্র জানান, বেশ ক’দিন ধরেই আমার মেয়ে জ্বরে ভুগছিল৷ স্থানীয় চিকিৎসককে দেখিয়েও জ্বর না কমায় রবিবার সাড়ে আটটা নাগাদ আমরা ওকে রামপুর স্বাস্থ্য জেলা হাসপাতালে ভরতি করি৷

পরাণবাবুর অভিযোগ, ‘‘গভীর রাতে মেয়ের অক্সিজেনের নল খুলে যায়৷ সঙ্গে সঙ্গে আমরা নার্সকে গিয়ে সেকথা বলি৷ কিন্তু উনি মোবাইলে ব্যস্ত ছিলেন৷ আমাদের কথার কোনও কর্ণপাত করেননি৷ বরং ওঁনাকে অক্সিজেনের নল খুলে গেছে বলায়, উনি বলেন- আমি এখন ব্যস্ত রয়েছি৷ আপনারা নিজেরাই লাগিয়ে নিন৷ ওই নার্সের গাফিলতিতেই রাতের দিকে মৃত্যু হয় আমার মেয়ের৷ ওই নার্সের কঠোর শাস্তি চাই৷’’

আরও পড়ুন: আইন ভেঙে রাজ্য সরকারি কর্মী তৃণমূলের পঞ্চায়েত পর্যবেক্ষক

ঘটনার জেরে এদিন সকাল থেকে হাসপাতালে বিক্ষোভ শুরু করেন মৃত শিশুর পরিজনেরা৷ তাতে সামিল হন অন্য রোগীর পরিজনেরাও৷ সকলেরই দাবি: অভিযুক্ত নার্সের কঠোর শাস্তির ব্যবস্থা করতে হবে৷ ঘটনার জেরে অভিযুক্তের বিরুদ্ধে বিশেষ তদন্ত কমিটি গঠন করেছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ৷

--
----
--