ওবিসি সংরক্ষণে লক্ষ্যহীন মুখ্যমন্ত্রী: বিরোধী তোপ

স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: উচ্চশিক্ষায় সংরক্ষণকে মুখ্যমন্ত্রীর ভাঁওতা বলেই কটাক্ষ করলেন বিরোধীরা৷ শুধু তাই নয়৷ বিরোধীদের দাবি, মুখ্যমন্ত্রী নিজেই লক্ষ্যহীন৷কাজেই, উচ্চশিক্ষায় সংরক্ষণে মুখ্যমন্ত্রীর লক্ষ্যপূরণ কীভাবে সম্ভব? যদিও, রাজনৈতিক মহলের ধারণা, ভোটব্যাংক অটুট রাখার কৌশল হিসেবেই উচ্চশিক্ষায় অন্যান্য অনগ্রসর শ্রেণি (ওবিসি)-র জন্য ছ’বছরে ১৭ শতাংশ সংরক্ষণের লক্ষ্যের কথা ঘোষণা করেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷

বুধবার সন্ধ্যায় ফেসবুকে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ঘোষণায় দাবি করা হয়েছে, উচ্চশিক্ষায় ওবিসি-র জন্য ছ’বছরের মধ্যে ১৭ শতাংশ আসন সংরক্ষণে বদ্ধপরিকর রাজ্য সরকার৷ শুধু তাই নয়৷ উচ্চশিক্ষার সম্প্রসারণ হচ্ছে সকলের জন্য৷ ফেসবুকের ওই ঘোষণায় মুখ্যমন্ত্রীর দাবি, ‘ছ’বছরের মধ্যে উচ্চশিক্ষায় ওবিসি-র জন্য ১৭ শতাংশ আসন সংরক্ষণ করা আমাদের লক্ষ্য৷ওই লক্ষ্য অনুযায়ী প্রথম বছরে অর্থাৎ, ২০১৪-১৫-য় উচ্চশিক্ষায় ওবিসি-র জন্য ১০.৬ শতাংশ আসন সংরক্ষণ করা সম্ভব হয়েছে৷ওবিসি-র জন্য এই ধরনের সংরক্ষণের কোনও প্রভাব পড়বে না জেনারেল ক্যাটেগরির পড়ুয়াদের উপর৷’

উচ্চশিক্ষায় এ ভাবে সংরক্ষণের লক্ষ্যকে, মুখ্যমন্ত্রীর লক্ষ্যহীনতার সঙ্গেই তুলনা করেছেন রাজ্যের বিরোধী দলনেতা সূর্যকান্ত মিশ্র৷ তাঁর কথায়, ‘মুখ্যমন্ত্রীর নিজেরই কোনও লক্ষ্য নেই৷ওবিসি-র জন্য সংরক্ষণের ওই লক্ষ্যপূরণ তিনি কীভাবে করবেন?’ একই সঙ্গে বিরোধী দলনেতা বলেন, ‘বুধবার বিধানসভায় দুর্বল শ্রেণির জন্য পাঁচ শতাংশ সংরক্ষণের বিষয়ে একটি বিল পাস হয়েছে৷ দুর্বল শ্রেণি বলতে কাদের কথা বলা হয়েছে, তা ওই বিলে স্পষ্ট  নয়৷এ ভাবে কি চলে?’ ফেসবুকে মুখ্যমন্ত্রীর ঘোষণায় দাবি, ২০১৪-১৫-য় উচ্চশিক্ষায় ওবিসি-র জন্য ১০.৬ শতাংশ আসন সংরক্ষণ করা সম্ভব হয়েছে৷এ প্রসঙ্গে সূর্যকান্ত মিশ্র বলেন, ‘এই তথ্য আপনারাই মিলিয়ে দেখুন৷’

- Advertisement -

দু’বছরের মধ্যে ৯০ শতাংশ কাজ শেষ হয়ে যাওয়ার কথা বলেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী৷ তা হলে বাকি ১০ শতাংশ কাজ করতে এত সময় লাগছে কেন? এই ধরনের প্রশ্ন তুলে বিজেপির রাজ্য সভাপতি রাহুল সিনহার কটাক্ষ, ‘ওবিসি-র জন্য সংরক্ষণের ঘোষণা করে মুখ্যমন্ত্রী ভাঁওতা দিচ্ছেন৷ মুখ্যমন্ত্রীর সংখ্যাতত্ত্ব মুখ্যমন্ত্রীই জানেন৷’ একই সঙ্গে বিজেপি-র রাজ্য সভাপতি জানিয়েছেন, সাধারণ মানুষ  সব দেখছেন৷ বুঝতে পারছেন৷ বর্তমান রাজ্য সরকারের অন্তিমযাত্রা চলছে৷ ওবিসি-র জন্য ফেসবুকে মুখ্যমন্ত্রীর ঘোষণাকে কেন্দ্র করে রাজনৈতিক মহলে শুরু হয়েছে জোর জল্পনা৷রাজনৈতিক মহল মনে করছে, ভোটব্যাংক অটুট রাখার কৌশল হিসেবেই উচ্চশিক্ষায় ওবিসি-র জন্য সংরক্ষণের কথা ঘোষণা করলেন মুখ্যমন্ত্রী৷বছর দেড়েক পরই এ রাজ্যের বিধানসভা নির্বাচন৷তার আগে রয়েছে কলকাতা এবং শিলিগুড়ি কর্পোরেশনের নির্বাচন৷এ দিকে, একের পর এক ঘটনার জেরে রাজ্যের বর্তমান শাসকদল বিভিন্ন সময় বিভিন্ন প্রশ্ন এবং সমালোচনার সম্মুখীন হচ্ছে৷রাজ্যের শাসকদলের একাংশের অন্দরেও তৃণমূল কংগ্রেসের জনভিত্তি নিয়ে সংশয় দেখা দিয়েছে৷

______________________________________________________

Advertisement ---
-----