ভোট কর্মীদের কাজে বাধা দিলে ব্যবস্থার নির্দেশ কমিশনের

কলকাতা: বীরভূমের ময়ূরেশ্বরে বিজেপি প্রার্থী লকেট চট্টোপাধ্যায়ের ‘রিগিং’ হুমকির পর এবার নড়েচড়ে বসল নির্বাচন কমিশন৷ ভোটের আগে ও পরে কোনও প্রার্থী বুথে ঢুকে ভোট কর্মীদের কাজে বাধা দিলে সেই প্রার্থীর বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ জারি করল কমিশন৷ মঙ্গলবারের মধ্যেই প্রতিটি জেলার জেলা শাসক ও পুলিশ সুপারদের কাছেও সেই নির্দেশিকা পৌঁছে দেওয়া হবে বলে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে৷

সোমবার বিকেলে জাতীয় নির্বাচন কমিশনের পক্ষ থেকে একটি ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে রাজ্য মুখ্য নির্বাচনী অধিকারীকের কার্যালয়ের প্রতিনিধিদের একটি বৈঠক করা হয়৷ ওই বৈঠক থেকে নির্দেশিকা জারি হয়, ভোটের সময় কোনও ভোট কর্মীর কাজে বাধা অথবা হুমকি দেওয়া হলে কড়া ব্যবস্থা নেবে কমিশন৷ এই বিষয়ে পুলিশকেও বিশেষ ব্যবস্থা নিতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে৷

রবিবারের দ্বিতীয় দফার ভোটে বুথে ঢুকে ভোট কর্মীকে প্রকাশ্যে হুমকি দিয়েছিলেন বীরভূমের ময়ূরেশ্বরে বিজেপি প্রার্থী লকেট চট্টোপাধ্যায়৷ সেই হুমকির পর বিজেপি প্রার্থী লকেট চট্টোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে এফআইআর৷ বুথে ঢুকে প্রিসাইডিং অফিসার ও এজেন্টকে ধমক দেওয়ার অভিযোগও ওঠে লকের বিরুদ্ধে৷ প্রিসাইডিং অফিসারের অভিযোগের ভিত্তিতেই তাঁর বিরুদ্ধে মামলা রুজু করা হয়৷

রবিবার ভোট চলার সময় রিগিংয়ের অভিযোগ আনেন লকেট চট্টোপাধ্যায়৷ টেবিল চাপড়ে প্রিসাইডিং অফিসারকে রীতিমতো ধমক দেন তিনি৷ লকেট বলেন, ‘‘আপনারা বাংলাকে ধ্বংস করছেন৷ আমাদের কাছে রিগিংয়ের প্রমাণ আছে৷ আপনাদের দেখাব না৷ মোবাইলে তোলা সেই ছবি দিল্লিতে পাঠাব৷ সাড়ে দশটা থেকে এগারোটার মধ্যে এই বুথে অসম্ভব রিগিং হয়েছে৷ সব টিভি চ্যানেল দেখাচ্ছে৷’’ এর পরই সরকারি কাজে বাধা দেওয়ার অভিযোগে লেকেটের বিরুদ্ধে মামলা রুজু করা হয়৷ ময়ূরেশ্বর থানায় এফআইআর দায়ের করা হয়৷

Advertisement
----
-----