খড়দায় গভীর রাতে শ্যুট আউট, গুলিবিদ্ধ যুবক

স্টাফ রিপোর্টার, বারাকপুর: পুরনো শত্রুতার জেরে গুলিবিদ্ধ ওলা চালক। তাঁর নাম রাজু দত্ত৷ বুধবার গভীর রাতে উত্তর ২৪ পরগনার খড়দায় তিনি গুলিবিদ্ধ হন৷ জখম রাজুর শারীরিক অবস্থা স্থিতিশীল হলে তাঁকে পুলিশ জিঞ্জাসাবাদ করে পাঁচ অভিযুক্তের নাম জানতে পারে৷ এরপরই পুলিশ তদন্তে নেমে বৃহস্পতিবার সকালে গোপন সূত্রে খবর পেয়ে আগরপাড়া এলাকা থেকে পাঁচ জন অভিযুক্তকে গ্রেফতার করে৷

পাঁচ অভিযুক্তের নাম সজল সাউ, পিন্টু সরকার, পরিতোষ দাস, রাজিব বিশ্বাস এবং অনুপম ঘোষ৷ তাদের গ্রেফতার করে এদিন দুপুরেই বারাকপুর আদালতে পেশ করে খড়দহ থানার পুলিশ। সজল, পিন্টু ও পরিতোষকে সাত দিনের পুলিশি হেফাজত ও বাকি দুই অভিযুক্ত রাজিব ও অনুপমকে সাত দিনের জেল হেফাজতের নির্দেশ দেয় আদালত৷পাশাপাশি সজল, পিন্টু ও পরিতোষকে নিজেদের হেফাজতে নিয়ে পুলিশ এই গুলি চালনার ঘটনার প্রকৃত কারণ জানার চেষ্টা করবে বলে জানা গিয়েছে।

- Advertisement -

আরও পড়ুন: স্বামীর সামনেই দুই যুবকের সঙ্গে সঙ্গমে বাধ্য হল স্ত্রী

প্রাথমিক তদন্তের পর পুলিশের অনুমান পুরনো শত্রুতার জেরেই এই ঘটনা৷ রাজুর পরিবার সূত্রে জানা গিয়েছে, বুধবার গভীর রাতে অনুষ্ঠান বাড়ি থেকে তিনি যখন ফিরছিলেন তখন তাঁর বাড়ি থেকে কিছুটা দূরে খড়দহর ৫ নম্বর রেলগেট সংলগ্ন লাহা বাগান এলাকায় একদল দুষ্কৃতী তাঁর উপর চড়াও হয়৷ রাজুকে ঘিরে ধরে খুব কাছ থেকে তাঁর উপর সজল ও তার দলবল বেশ কয়েক রাউন্ড গুলি চালায়।

আরও পড়ুন: মোদীর দল ছেড়ে মমতার দলে নাম লেখালেন পঞ্চায়েতে জয়ী প্রার্থী

ওই দুষ্কৃতীদলের ছোড়া তিনটি গুলি লাগে রাজুর শরীরে৷ তাঁর পিঠে একটি ও পায়ে দুটি গুলি লাগে। গুলিবিদ্ধ অবস্থায় আহত রাজু ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে যায়৷ সেখানে তাঁকে প্রতিবেশীরা দেখতে পেয়ে তাঁর বাড়িতে খবর দেয়৷ অন্যদিকে, গুলি চালানোর খবর পেয়ে খড়দহ থানার পুলিশ দ্রুত ঘটনাস্থলে যায়৷ পুলিশ রাজুকে নিয়ে কলকাতার আর জি কর হাসপাতালে ভরতি করে। পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, পুরনো শত্রুতার জেরে এই ঘটনা ঘটেছে। গোটা ঘটনার তদন্তে নেমেছে খড়দহ থানার পুলিশ। গুলিবিদ্ধ রাজু দত্তর অবস্থা স্থিতিশীল বলে জানা গিয়েছে।

আরও পড়ুন: এবার এক ক্লিকে কাটা যাবে লোকাল ট্রেনের টিকিট

Advertisement
---