স্টাফ রিপোর্টার, পূর্ব বর্ধমান: সরকারি আবাসনে বৃদ্ধাকে খুন করার ঘটনায় ফুল ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার করল পুলিশ৷
পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, ধৃতের নাম বাসুদেব রাজবংশী ওরফে প্রশান্ত৷ বাড়ি পূর্বস্থলী থানার কাষ্ঠশালী গ্রামের জেলেপাড়ায়৷ মঙ্গলবার ধৃতকে বর্ধমান আদালতে তোলার পর ধৃতকে চার দিনের পুলিশি হেফাজতের নির্দেশ দেন৷

পুলিশের দাবি, ধৃত প্রশান্ত পুলিশের কাছে স্বীকার করেছে বাসবি বন্দ্যোপাধ্যায়ের গায়ে থাকা গহনার লোভেই তাকে শ্বাসরোধ করে খুন করেছে সে৷ পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, সোমবার রাতে তাঁকে বাড়ি থেকেই গ্রেফতার করে পুলিশ৷ ধৃতের কাছ থেকে লুঠ হওয়া সোনার গহনা উদ্ধার হলেও সোনার একটি চেন উদ্ধার করতে পারেনি পুলিশ৷ ধৃত ওই সোনার চেন স্থানীয় এক স্বর্ণ ব্যবসায়ীকে বিক্রি করেছে বলে পুলিশি জেরায় সে জানিয়েছে৷ ওই সোনা ব্যবসায়ীকেও পুলিশ পায়নি৷

পুলিশি জেরায় ধৃত প্রশান্ত জানিয়েছেন, গত বুধবার অন্যান্যদিনের মতই সে বাসবিদেবীর বাড়িতে যায়৷ পূর্ব পরিচিত হওয়ায় তাকে চা খাওয়ানোর জন্য বাসবিদেবী রান্নাঘরে ঢুকতেই তাকে পিছন থেকে গলাটিপে শ্বাসরোধ করে খুন করে প্রশান্ত৷ এরপরই বৃদ্ধার গায়ে থাকা গহনা নিয়ে সে চম্পট দেয়৷ ঘটনার তদন্তে নেমে পুলিশ সন্দেহের তালিকায় প্রশান্তর নাম পায়৷ জানা যায়, ঘটনার দিন সে ওই এলাকায় ফুলের চারা বিক্রি করতে এসেছিল৷

এদিন আদালতে পুলিশ জানিয়েছে, মৃতা বাসবিদেবীর হাতের মুঠো থেকে কিছু চুল পাওয়া যায়৷ সম্ভবত মৃত্যুর আগে প্রাণ বাঁচাতে তিনি প্রশান্তর মাথার চুলের মুঠি ধরেছিলেন৷ এদিন আদালতের কাছে উদ্ধার হওয়া চুলের সঙ্গে ধৃতের চুলের নমুনা পরীক্ষা করার আবেদন জানান তদন্তকারী অফিসার৷ একইসঙ্গে তিনি ঘটনাস্থল থেকে পাওয়া রক্তের নমুনারও পরীক্ষার আবেদন জানান৷

--
----
--