ছ’দিন আগেও ভারতীয় পাসপোর্ট নিয়ে ট্রেনে চেপেছেন নীরব মোদী

নয়াদিল্লি: চলতি মাসেই ভারতীয় পাসপোর্ট নিয়ে ট্রাভেল করেছেন নীরব মোদী। ১৩০০০ কোটি টাকার ঋণখেলাপিতে অভিযুক্ত নীরব গত ১২ জুন ভারতীয় পাসপোর্ট নিয়ে লন্ডন থেকে ব্রাসেলস গিয়েছেন বলে জানা গিয়েছে।

তবে বিমানে যাত্রা করেননি মোদী। বদলে বেছে নিয়েছিলেন হাই স্পিড ট্রেন। আর তাতে চেপেই এক শহর থেকে আর এক শহরে যান। ইউরোপিয়ান ইমিগ্রেশন অথরিটির কাছ থেকে খবরটি নিশ্চিত করেছে ভারতের আধিকারিকেরা। ইউরোপের অভিবাসন দফতরই মোদীর ব্রাসেলস যাত্রার সময় পাসপোর্টটা হাতে নাতে ধরে ফেলে।

গত ২৪ ফেব্রুয়ারিই নীরব মোদীর পাসপোর্ট বাতিল করে দেয় সিবিআই। গত ১১ জুন তারা রেড কর্নার নোটিশের জন্য আবেদনও জানায় ইন্টারপোলে। এর আগে চার্জশিট না থাকায় রেড কর্নার নোটিশ জারি করার ক্ষেত্রে সমস্যা হয়েছিল। কীভাবে বাতিল পাসপোর্ট নিয়ে নীর মোদী যাতায়াত করছে, তা জানার চেষ্টা চালাচ্ছে সিবিআই।

- Advertisement -

সিবিআই ও ইডির আবেদনের পর বাতিল করা হয় মোদীর পাসপোর্ট। তা সত্বেও সে একাধিকবার ওই পাসপোর্টে ট্রাভেল করেছে বলেই অনুমান করা হচ্ছে।

গত ফেব্রুয়ারি মাস থেকে পিএমবি-র জালিয়াতি মামলায় অভিযুক্ত নীরব মোদী দেশ ছেড়ে পালিয়ে যান৷

তখন থেকেই খোঁজ চলছে তার৷ কিন্তু সাফল্য পায়নি ভারতীয় পুলিশ৷ তবে প্রাথমিক ভাবে অনুমান এই মুহূর্তে লন্ডনে রয়েছে নীরব। সেখানে তাঁর একটি গয়নার দোকান রয়েছে। ওয়াকিবহাল মহলের মত নীরব মোদীর প্রত্যর্পণ মামলাকে কেন্দ্র করে ভারত এবং ব্রিটেনের সম্পর্কে নতুন করে টানাপড়েন শুরু হতে পারে। এমনিতে বিজয় মালিয়াও ব্রিটেনে রয়েছেন।

নীরব মোদী ও তাঁর মামা মেহুল চোকসির বিরুদ্ধে অভিযোগ, পিএনবি-র সঙ্গে তাঁরা প্রায় ১৩ হাজার কোটি টাকার প্রতারণা করেছেন। ব্যাংক কেলেঙ্কারির তদন্তে সহযোগিতা তো দূরের কথা, দেশ ছেড়ে পালানোর পর তাঁরা যে কোথায় রয়েছেন, তা নিয়েই ধন্দে পড়ে গিয়েছিলেন তদন্তকারীরা। চলতি বছরের জানুয়ারির প্রথম সপ্তাহেই তাঁরা ভারত ছেড়ে বিদেশে গা ঢাকা দিয়েছিলেন বলে অভিযোগ।

Advertisement
---