দল থেকে সাসপেন্ড করা হতে পারে শত্রুঘ্নকে, বিজেপি সূত্র

নয়াদিল্লি: বিজেপি সাংসদ শত্রুঘ্ন সিনহার উপর নেমে আসতে পারে শাস্তির খাঁড়া৷ দলবিরোধী কাজের জন্য এবার তাঁকে করা হতে পারে সাসপেন্ড৷ বিজেপি সূত্রে এমনটাই জানা গিয়েছে৷ অমিত শাহ সুস্থ হয়ে ফিরে আসলেই শত্রুঘ্ন সিনহাকে দল থেকে ছেঁটে ফেলার কাজ শুরু হবে বলে জানিয়েছে ওই সূত্র৷

এদিন কলকাতার ব্রিগেডে মোদী বিরোধী মঞ্চে সামিল হয়েছিলেন বিহারী বাবু শত্রুঘ্ন সিনহাও৷ নিজের বক্তব্যে দল তথা নরেন্দ্র মোদীকে তীব্র আক্রমণ করেন৷ এমনকি মোদীকে চৌকিদার বলতেও পিছপা হননি তিনি৷ এমনিতেই কয়েকমাস ধরে বিজেপি বিরোধিতার সুর শোনা যাচ্ছিল তাঁর মুখে৷ সেই কারণে দলেও ক্রমশ কোণঠাসা হয়ে পড়ছিলেন৷ কিন্তু তাঁর ব্রিগেড আসা অতীতের সব বিরোধীতাকে ছাপিয়ে গিয়েছে৷ তাঁর উপর বেজায় ক্ষেপে গিয়েছে দলও৷ জল মাথার উপরে চলে গিয়েছে বুঝে এবার তাঁকে ছেঁটে ফেলার দাবি জোরদার হচ্ছে দলের অন্দরেই৷

সেই দাবির আঁচ পাওয়া গেল বিজেপি মুখপাত্র রাজীব প্রতাপ রুডির গলাতেও৷ এদিন তিনি খোলাখুলিভাবে শত্রুঘ্ন সিনহাকে সুবিধাবাদী ও চালাক বলে তোপ দাগেন৷ জানান, নিজেকে বিজেপি বলেন অথচ বিরোধীদের মঞ্চে হাজির থাকেন৷ গত পাঁচ বছর ধরে বিজেপির কোনও অনুষ্ঠানে সক্রিয়ভাবে অংশগ্রহণ করতে তাঁকে দেখা যায়নি৷ দল এবার তাঁর বিষয়ে যথাযথ সিদ্ধান্ত নেবে৷ রুডির মন্তব্যে পরিস্কার এবার শত্রুঘ্ন সিনহার বিরুদ্ধে এসপরা নয় উসপার সিদ্ধান্ত নিতে পারে বিজেপি৷ একই ইঙ্গিত মিলেছে বিহার বিজেপির সভাপতি নিত্যানন্দ রাইয়ের মন্তব্যেও৷ তিনি জানান, যথাসময়ে ঠিক সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে৷

সেই সিদ্ধান্ত কবে নেওয়া হবে? বিজেপির এক সূত্র জানাচ্ছে, অমিত শাহ সুস্থ হয়ে কাজে ফিরলেই শত্রুঘ্ন সিনহার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে৷ কারণ এতদিন তিনি দলের সমালোচনা করতেন৷ পরোক্ষে মোদীর সমালোচনাও করেছেন৷ কিন্তু ব্রিগেডে সরাসরি মোদীকেই আক্রমণ করেছেন৷ তাই এবার কিছুতেই তাঁকে রেয়াত করা হবে না৷