অ্যান্ড দ্য অস্কার গোজ টু

‘অ্যান্ড দ্য অস্কার গোজ টু..’  – ডলবি থিয়েটারের স্টেজে এই কটা শব্দের উচ্চারণ মানেই জেগে ওঠা নতুন শিহরণ৷ সিনেদুনিয়ার সেরাদের মধ্যেও কে আসলে সেরার সেরা তাইই ঠিক করে দেয় লম্বায় ৩৪.২ সেমি আর ৮.৫ পাউন্ড ওজনের গোল্ডেন ট্রফিটি৷ আর তাই যতই  অ্যাকাডেমি অ্যাওয়ার্ডের বয়স ৮৭ তে গড়াক, তামাম দুনিয়াকে আকর্ষণের চুম্বকে টেনে রাখার ক্ষমতায় আজও তা সত্যিই সেরার সেরা৷ গ্ল্যামারের ঝলকানি, ফ্যাশন আর প্যাশনের জমাটি ককটেলে শ্রেষ্ঠত্বের স্বীকৃতি-এই চার্মই অস্কারের ইউএসপি৷১৯২৯-এ চালু  হওয়ার পর থেকে এযাবৎ প্রায় ২৯৫১ টি অস্কার ট্রফি গেছে সেরাদের ঘরে ঘরে৷ ৮৭ তম অ্যাকাডেমি অ্যাওয়ার্ডের মোট ২৪টি ক্যাটেগোরিতে সেরাদের হাতে উঠল এই গোল্ডেন ট্রফি৷ আর ১০০-টি রও বেশি দেশের মানুষের কাছে সরাসরি সম্প্রচারে ছড়িয়ে পড়ল অস্কার অনুষ্ঠানের মুহূর্তরা৷ সামনে থেকে এইসব ঐতিহাসিক মুহূর্তের সাক্ষী থাকলেন প্রায় ৩৩০০ দর্শক৷

নিল প্যাট্রিক হ্যারিসের রসিকতায় শুরু হল এবারের অস্কার৷বললেন, আজ আমরা সম্মান জানাতে এসেছি ‘হোয়াইটেস্ট’দের..পরে যেন ভুল সংশোধনের ভঙ্গিমায় বললেন, আসলে ‘ব্রাইটেস্ট’দের৷ হাসিতে গড়িয়ে পড়ল গোটা ডলবি থিয়েটার৷ যদিও এর মধ্যে মজার বাইরে খানিকটা সত্যিও আছে বটে৷ এবারের নমিনেশনের তালিকায় জুড়ে আছেন শ্বেতাঙ্গরাই৷ তাই বোধহয় হ্যারিসের এমন মজা কিংবা খোঁচা৷ রসিকতা শেষ করে ধরলেন গান৷ তাঁর সঙ্গে আচমকা যোগ দিলেন আন্না কেনড্রিক৷ সব মিলিয়ে প্রত্যাশামতোই  জমজমাট শরুই হল অস্কারের৷

  • সেরা ছবির অনুমানে সারা বিশ্বজুড়ে ছড়িয়ে থাকা সিনেপ্রেমীরা এক নিশ্বাসে এতদিন বলে উঠেছিলেন ‘থিওরি অফ এভরিথিং’ এবং ‘বার্ডম্যান’-এর নাম৷ তাঁদের অনুমান সত্যি করেই সেরা হল ‘বার্ডম্যান’৷
  • সেরা অভিনেত্রীর তালিকায় জোর দাবিদার ছিলেন জুলিয়ান মুর৷ ‘স্টিল অ্যালিস’ ছবিতে জুলিয়ান অভিনয় করেছিলেন অ্যালঝাইমার্স আক্রান্ত এক প্রফেসরের ভূমিকায়৷ ‘গন গার্ল’-এর জন্য রোজামান্ড পাইক এবং ‘থিওরি অফ এভরিথিং’-এর নায়িকা ফেলিসিটি জোনসও ছিলেন খেতাবের সমান দাবিদার৷অবশেষে সে খেতাব জিতে নিলেন জুলিয়ান মুর৷
  • সেরা অভিনেতা ক্যাটেগোরিতে ‘আমেরিকান স্নাইপার’ ছবির জন্য নমিনেশন পেয়ে ব্র্যাডলি কুপার ছিলেন হ্যাটট্রিকের মুখে৷ এর আগে তিনি ‘অ্যামেরিকান হ্যাসল’(২০১৪) ও ‘সিলভার লাইনিং প্লেবুকস’(২০১৩) এর জন্য নমিনেশন পেয়েছিলেন তিনি৷ অস্কারের ইতিহাসে তিনি দশম অভিনেতা,যিনি নমিনেশনের নিরিখে হ্যাটট্রিকের দোরগোড়ায় পৌঁছেছিলেন৷ এদিকে ‘থিওরি এফ এভরিথিং’-এ স্টিফেন হকিন্স চরিত্রের অভিনেতা এডি রেডমাইনে ও ‘বার্ডম্যান’ ছবির মাইকেল কিটনও তাঁদের অনবদ্য অভিনয়ের জোরে খেতাবের জোর দাবিদার ছিলেন৷ অস্কারের ট্রফি শেষমেশ হাতে পেলেন এডি রেডমাইনে৷
  •  সেরা ছবির ভিড়ে কোন পরিচালকের মেধা স্বীকৃতি ছিনিয়ে নেবে, তা নিয়ে থাকে বরাবরের উৎসাহ৷ ‘থিওরি অফ এভরিথিং’-এর পরিচালক রিচার্ড লিঙ্কলেটার নাকি আলসেন্দ্রো গঞ্জালেস ইনারিত্তু-এই দুই নামেই চলছিল তামাম দুনিয়ার অনুমান৷ শেষমেশ বাজি জিতলেন ‘বার্ডম্যান’ পরিচালক আলসেন্দ্রো গঞ্জালেস ইনারিত্ত৷
  • এবারের সেরা সহ অভিনেতার তকমা গেল  জে কে সিমন৷‘হুইপল্যাশ’ ছবির জন্য তাঁর এই স্বীকৃতি৷
  • সেরা সহ অভিনেত্রী হিসাবে ‘বয়হুড’ সিনেমার সিঙ্গল মাদার হয়ে মুগ্ধ করা প্যাট্রেসিয়ার নামই ফিরছিল সকলের মুখে মুখে৷ ফ্যানদের খুশি করলেন তিনি৷সেরার স্বীকৃতি গেল তাঁর কাছেই৷তাঁর পুরস্কার তিনি উৎসর্গ করলেন সমস্ত নারীদের উদ্দেশে৷ নারী-পুরুষের সাম্যের কথাও উঠে এল তাঁর মুখে৷একই সঙ্গে সম্পদের সমবন্টনের মতো প্রসঙ্গও বিশ্বের এই ঝলমলে সন্ধ্যায় তুলে আনলেন তিনি৷
  • অভিনেতাদের চরিত্র অনুযায়ী সাজিয়ে তোলার শিল্পকেও কুর্নিশ জানায় অ্যাকাডেমি অ্যাওয়ার্ড৷ কস্টিউম ডিজাইন বিভাগে সেরার সম্মান এবার গেল মিলেনা ক্যানোনোরার কাছে৷ পেলেন-‘দ্য গ্র্যান্ড বুদাপেস্ট হোটেল’ ছবির জন্য৷
  • মেকআপ ও হেয়ারস্টাইলে সেরার স্বীকৃতি ফ্রান্সিস হ্যানন ও মার্ক কোলির৷‘দ্য গ্র্যান্ড বুদাপেস্ট হোটেল’-এর জন্যই৷
  • বিদেশী ভাষার সেরা ছবির দৌড়ে সকলের অনুমানে এগিয়ে ছিল রাশিয়ান ছবি ‘লেভিয়াথান’৷ তবে শেষমেশ খেতাব জিতল ‘ইদা’৷
  • সেরা শর্ট ফিল্ম- ‘দ্য ফোন কল’
  • সেরা ডকুমেন্ট্রি শর্ট সাবজেক্ট- ‘ক্রাইসিস হটলাইন: ভেটরান প্রেস ওয়ান’
  • সেরা ডকুমেন্ট্রি ফিচার- সিটিজেন ফোর
  • সাউন্ড মিক্সিংয়ে সেরা-‘হুইপল্যাশ’
  • সাউন্ড এডিটিং-‘আমেরিকান স্নাইপার’
  • ভিজুয়াল এফেক্টস-‘ইনটারস্টেলর’
  • সেরা অ্যানিমেটেড শর্ট ফিল্ম-‘ফিস্ট’
  • সেরা অ্যানিমেটেড ফিচার ফিল্ম- ‘বিগ হিরো সিক্স’
  • সেরা প্রোডাকশন ডিজাইন- ‘দ্য গ্র্যান্ড বুডাপেস্ট হোটেল’(অ্যাডাম স্টকহাউসেন ও আনা পিনক)
  • সেরা ছবিদের মিছিলে ক্যামেরার পিছনে চোখ রেখে সিনেমাটোগ্রাফিতে খেতাব নিয়ে গেলেন ইমানুয়েল লুবেজকি (বার্ডম্যান)
  • সেরা এডিটিং- টম ক্রস(হুইপল্যাশ)
  • সঙ্গীতে অরিজিনাল সং- ‘গ্লোরি’ (সেলমা-জন স্টিফেন্স ও লুনি লিন)
  • সঙ্গীতে অরিজিনাল স্কোর‘দ্য গ্র্যান্ড বুদাপেস্ট হোটেল’
  • অরিজিনাল স্ক্রিন-প্লে- বার্ডম্যান
  • অ্যাডাপ্টেড স্ক্রিন-প্লে- গ্রাহাম মুর (দ্য ইমিটেশন গেম)
Advertisement ---
---
-----