হিন্দু মন্দির হল হিন্দুদের দেব উপাসনার স্থান৷ হিন্দু মন্দির হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের দেব উপাসনার স্থান৷ ভারতবর্ষের মন্দিরকে ঘিরে রয়েছে একাধিক অলৌকিক ঘটনা৷ যেগুলো সত্য হলেও সেগুলি বিশ্বাস করা যথেষ্ট কঠিন৷ রাজস্থানের তানোট মাতা মন্দিরকে ঘিরেও রয়েছে এমনই কিছু ঘটনা যা একেবারেই অবিশ্বাস্য৷

রাজস্থানের জয়সলমীরে এই মন্দিরটি অবস্থিত৷ হিংলজ মাতাকে এখানে দেবীরূপে পূজা করা হত৷ পরবর্তীকালে তানোট মাতা হিসেবেই দেবীকে উপাসনা করা হয়৷ প্রায় ১২০০বছর আগে এই মন্দিরটি তৈরি করা হয়েছিল৷ কথিত আছে, এই মন্দিরটি খুবই জাগ্রত৷ মন থেকে কিছু প্রার্থনা করলে ভক্তদের মনষ্কামনা পূরণ করে এই মন্দিরটি৷

Advertisement

এই মন্দিরটি ঘিরেও রয়েছে এক অলৌকিক ঘটনা৷ ১৯৬৫সালে পাকসেনারা এই মন্দিরটিকে লক্ষ করে হামলা চালায়৷ এমনকি বোমা নিক্ষেপও করে৷ প্রায় ৩০০টি বোমা নিক্ষেপ করা হয় এই গ্রামে৷ যার মধ্যে ৪৫টি বোমা ফেলা হয় এই মন্দিরের উপরে৷ কিন্তু এই বোমা একটুর জন্যও এই মন্দিরের কোনওরকম কোনও ক্ষতি করতে পারেনি৷ একটিও আঁচড় লাগে নি এই মন্দিরের উপরে৷ তবে, ভারত পাকিস্তান সীমান্তে এই মন্দিরটি থাকার ফলে এই মন্দিরটিতে অতিরিক্ত নিরাপত্তার ব্যবস্থা থাকে সবসময়ই৷

এরপরই এই মন্দিরটির কর্তৃপক্ষ একটি সংগ্রহশালা তৈরি করে৷ সেই সংগ্রহশালায় রাখা রয়েছে বেশ কয়েকটি বোমা৷ যেগুলি মন্দিরের উপরে নিক্ষেপ করা হলেও সেগুলির একটি বিস্ফোরণ ঘটায়নি৷

এই গ্রামটির জনসংখ্যা মাত্র ৪৯২৷ শত্রুপক্ষের হাত থেকে মন্দিরটিকে রক্ষা করার জন্য মন্দিরে প্রবেশ করার ক্ষেত্রেও দর্শনার্থীদের বেশ কিছু নিয়ম মেনে চলতে হয়৷

----
--