‘জোর করে টেনে এনে ওরা আমাকে বাবা-মা’র সামনেই ধর্ষণ করল’

ইসলামাবাদঃ  পাকিস্তানের মুলতানে একটি গ্রাম্য দরবারে ভাইয়ের ধর্ষণের অপরাধের সাজা হিসেবে তার কিশোরী বোনকে ধর্ষণের নির্দেশ দেওয়া হল। যদিও এই ঘটনায় অন্তত ২০ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এই ঘটনায় আরও অন্তত ৫ জনকে খুঁজে বেড়াচ্ছে পুলিশ। পুলিশ জানিয়েছে, “এই মাসের শুরুর দিকে খাপ-পঞ্চায়েতে একজন ব্যক্তি অভিযোগ করেন, তার ১২ বছরের বোনকে ধর্ষণ করা হয়েছে। আর তার সাজা হিসেবে সন্দেহভাজন ধর্ষকের বোনকে ধর্ষণ করতে ওই ব্যক্তিকে নির্দেশ দেওয়া হয়।”

পাকিস্তানের সংবাদমাধ্যম ডন জানিয়েছে, সাজা ঘোষণার পর ১৬ বছরের মেয়েটিকে জোর করে পাকিস্তানের খাপ-পঞ্চায়েতের সামনে নিয়ে আসা হয়। এরপর বাবা-মার উপস্থিতিতেই সবার সামনে তাকে ধর্ষণ করা হয়। যদিও মেয়ের এই অবস্থা দেখে চুপ করে থাকতে পারেননি মায়েরা। নির্যাতিতা দুই কিশোরীর মায়েরা স্থানীয় থানায় অভিযোগ করেন। শারীরিক পরীক্ষায় দুই মেয়েই ধর্ষণের শিকার হয়েছেন বলে প্রমাণ পাওয়া গেছে। এই ঘটনায় ২৫ জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়।

পাকিস্তানের মাটিতে এমন খাপ-পঞ্চায়েতের নিদান নতুন কিছু নয়। এর আগেও একাধিকবার বিতর্কিত নিদান দিয়ে প্রশ্নের মুখে পড়েছিল প্রশাসন। যদিও এই সমস্ত খাপ-পঞ্চায়েতের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার কথা বলা হয়েছিল। কিন্তু তা কখনই নেয়নি পাকিস্তান সরকার।

Advertisement
---