ভারতকে প্যাঁচে ফেলতে গিয়ে রাষ্ট্রসংঘে মুখ পুড়ল পাকিস্তানের

রাষ্ট্রসংঘ: জম্মু-কাশ্মীরে সন্ত্রাসবাদ প্রসঙ্গে নিয়ে ভারতকে প্যাঁচে ফেলতে গিয়ে রাষ্ট্রসংঘে মুখ পুড়ল পাকিস্তানের৷ ভারতের আক্রমণের কাছে খেই হারিয়ে একটি ভুয়ো ছবি তুলে ধরে পাকিস্তান৷ কাশ্মীরে পেলেট বন্দুকের জেরে ক্ষতিগ্রস্তদের ছবি তুলে ধরার সময় প্যালেস্টাইনের নির্যাতিতার ছবি দেখান রাষ্ট্রসংঘে নিযুক্ত পাকিস্তানের প্রতিনিধি মালিহা লোধি ৷ পরে সেই ছবির সত্যতা প্রকাশ পায়৷  যার জেরে আন্তর্জাতিক স্তরে পাকিস্তানের মিথ্যাচার ফের প্রকাশ্যে এসে পড়েছে৷

শনিবার সন্ত্রাসবাদ নিয়ে রাষ্ট্রসংঘের সাধারণ অধিবেশনে পাকিস্তানকে তুলোধনা করেন বিদেশমন্ত্রী সুষমা স্বরাজ৷ পাকিস্তানকে ‘সন্ত্রাসবাদের রপ্তানিকারক দেশ’ বলে উল্লেখ করে বিদেশমন্ত্রী বলেন, ভারত আইআইটি, আইআইএম, ইসরো তৈরি করেছে৷ আর পাকিস্তান তৈরি করেছে লস্কর-ই-তইবা, জইশ-ই-মহম্মদ, হিজবুল মুজাহিদিন৷ বিশ্বের কাছে পাকিস্তানের পরিচয় এক সন্ত্রাসবাদী তৈরির কারখানা মাত্র৷ সুষমা স্বরাজের ভাষণের আগে পাকিস্তানকে ‘টেররিস্তান’ বলে উল্লেখ করেন ভারতের প্রতিনিধি৷

রবিবার ভারতের বিদেশমন্ত্রী সুষমা স্বরাজের কড়া সমালোচনার জবাব দিতে আসরে নামেন পাকিস্তানের প্রতিনিধি  মালিহা লোধি৷  এক তরুণীর ক্ষত-বিক্ষত রক্তাক্ত মুখের ছবি তুলে ধরে মালিহা লোধি বলেন, ‘‘এটাই ভারতের গণতন্ত্রের মুখ৷’’

- Advertisement -

কিছুক্ষণ পর অবশ্য জানা যায় ছবিটি আদৌ ভারতের নয়৷ যে তরুণীকে ওই ছবিতে দেখা গিয়েছে সে আসলে ইজরায়েল দ্বারা অবরুদ্ধ গাজা ভূখণ্ডের নাগরিক৷ মেয়েটির পরিচয়ও জানা গিয়েছে৷ ১৭ বছর বয়সী ওই তরুণীর নাম রাইয়া আবু জোম৷ ইজরায়েলি বিমান বাহিনীর হামলায় আহত হয় সে৷ ২০১৪ সালের জুলাই মাসে যুদ্ধের খবর সংগ্রহ করতে গিয়ে এক চিত্র সাংবাদিক হেইদি লিভাইন ছবিটি তোলেন৷ এরপরই পাকিস্তানের মিথ্যাচার প্রকাশ্যে এসে পড়ে৷

Advertisement
---