‘ট্রাম্পের ট্যুইটের জবাব চাই!’ মার্কিন রাষ্ট্রদূতকে তলব পাকিস্তানের

ইসলামাবাদ: ‘মিথ্যেবাদী’ এবং সন্ত্রাসবাদে মদত দেওয়ার অভিযোগে পাকিস্তানকে আর্থিক সাহায্য বন্ধ করে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প৷ সোশ্যাল মিডিয়াকে হাতিয়ার করে একের পর এক ট্যুইট করে পাকিস্তানের প্রতি ক্ষোভ উগড়ে দিয়েছেন তিনি৷ এবার সেই ট্যুইট নিয়েই মার্কিন রাষ্ট্রদূত ডেভিড হেলকে তলব করল পাকিস্তান৷

ট্রাম্পের ট্যুইটের পর প্রথমে মুখ খোলেনি পাকিস্তান৷ যদিও পাকিস্তানের বিদেশমন্ত্রী আসিফ জানিয়েছিলেন, সময় হলে আসল সত্যিটা প্রকাশ্যে আসবে৷ মঙ্গলবার পাকিস্তানের বিদেশমন্ত্রক ট্যুইটারের বিরোধিতা সেটির জবাবদিহি চেয়ে মার্কিন রাষ্ট্রদূতকে তলব করে৷ এই প্রসঙ্গে পাক বিদেশ সচিব তেহমিনা জানজুয়া জানিয়েছেন, কেন ট্রাম্প এই ধরণের একটি ট্যুইট করলেন সেটিরই জবাব চাইতেই এই তলব৷

বর্ষবরণের শুরুতেই পাকিস্তানের বিরুদ্ধে তোপ দেগে লাইমলাইটে এলেও, তাঁর অভিযোগের ভিত্তিতে এবার পরিস্থিতি কিভাবে সামাল দেবেন৷ সেটির দিকেই তাকিয়ে কূটনৈতিক মহল৷

ট্যুইটে ট্রাম্প জানিয়েছেন, গত পনেরো বছর ধরে আমেরিকা পাকিস্তানকে ৩৩বিলিয়ন ডলার আর্থিক সাহায্য দিয়েছে৷ কিন্তু তার প্রত্যুত্তরে আমেরিকাকে দেওয়া কথা রাখেনি পাকিস্তান৷ এমনই তোপ দাগলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট৷ সন্ত্রাস দমনের সদিচ্ছা নিয়েও বারবার পাকিস্তান আন্তর্জাতিক মঞ্চে প্রশ্নের সম্মুখীন হয়েছে৷ কিন্তু এরপরও নিজেদের অবস্থান থেকে সরে আসেনি পাকিস্তান৷ এই কারণেই পাকিস্তানের বিরুদ্ধে কড়া বার্তা দেন ট্রাম্প৷

Advertisement ---
-----