‘ইমরানের পাকিস্তান ভারতের সঙ্গে বন্ধুত্বে উৎসাহী’

ইসলামাবাদ: কয়েকমাস আগেও পাক সরকারের বিরুদ্ধে হেনস্থার অভিযোগ এনেছিলেন অজয় বিসারিয়া৷ সেই পাকিস্তানের ভারতীয় হাই কমিশনারের গলায় এখন অন্য সুর৷ ইমরানের প্রধানমন্ত্রীত্বে ভারত-পাক কূটনৈতিক বন্ধুত্বের পথ প্রশস্ত হবে বলে মনে করছেন তিনি৷ ইমরান খানের সঙ্গে ব্যক্তিগত সাক্ষাতের পরই অজয় বিসারিয়ার বিশ্বাস, ইমরানের কারণেই ভারত-পাক সম্পর্কে নতুন মোড় নেবে৷

সন্ত্রাসদমন প্রসঙ্গে ইমরান জানিয়েছেন, সন্ত্রাসের বিপুদ্ধে জিহাদ নয়, উন্নয়নেই এবার নজর৷ সেই মন্তব্যকে সমর্থন করেই বিসারিয়ার দাবি, সন্ত্রাস দমন হবে ভারত-পাক দ্বিপাক্ষিক বৈঠকের মাধ্যমেই৷ পাঠানকোট, উরি হামলার পরেই ২ দেশের দ্বিপাক্ষিক বৈঠকের পথ চিরতরে বন্ধ হয়৷ কিন্চু বিসারিয়ার দাবি, নতুন সরকার আসায় সেই আলোচনার দরজাই খুললেন৷

আরও পড়ুন: প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রীকে ঔরঙ্গজেব বললেন যোগী আদিত্যনাথ

- Advertisement -

পাকিস্তানে বন্দি ভারতীয়দের মুক্তি প্রসঙ্গ ২ দেশের আলোচনার প্রথমেই থাকবে বলে জানাচ্ছেন পাকিস্তানের ভারতীয় কমিশনার৷ প্রধানমন্ত্রী হওয়ার পর ইমরান খানও ভারত-পাক সম্পর্ক দৃঢ় করতে এই উদ্যোগ নেবেন বলেও কূটনৈতিক মহলের মত৷ উপমহাদেশের সমস্যা আলোচনা ও পারস্পরিক বন্ধুত্বের মাধ্যমে মিটবে বলে আগেই ইমরান খান জানিয়েছেন৷

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীও ইমরান খানকে সৌজন্যমূলক চিঠি লেখেন, জানান প্রতিবেশীর সম্পর্ক রক্ষা করাই মূল লক্ষ্য৷ পাশাপাশি, ভারতকে সন্ত্রাসমুক্ত করতে অঙ্গীকারবদ্ধ হোক দুই দেশ বলেও চিঠিতে জানান মোদী৷

আরও পড়ুন: এখন বিশ্বের অন্যতম গতিশীল অর্থনীতি ভারত: নরেন্দ্র মোদী

মোদীকেও ধন্যবাদ জানিয়ে ইমরান চিঠিতে নতুন করে ভারত-পাক সুসম্পর্ক গড়ে তোলার বার্তা দেন৷ জানান, কাশ্মীর নিয়েও ২ দেশের মুখোমুখি বৈঠক একান্ত কাম্য৷ ইমরানকে সমর্থন করেই বিসারিয়া জানাচ্ছেন, ভবিষ্যতের কথা ভেবেই ভারত-পাক দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কের কথা ভাবা উচিত ২ দেশের৷

কয়েকমাস আগেই পাকিস্তানের পাঞ্জাব প্রদেশে ভারত থেকে আসা শিখ তীর্থযাত্রীদের সঙ্গে দেখা করতে চেয়েছিলেন অজয় সিসোদিয়া৷ পাক উপরমহল থেকে আসা নির্দেশের ভিত্তিতে সিসোদিয়াকে ঢুকতে দেয়নি পাক সেনা৷ অপমানিত হয়েই ফিরে আসতে হয় তাঁকে৷ ইমরান খান প্রধনামন্ত্রী হওয়ার পরই চিত্রের উলোটপুরান৷ ইমরানেই আশা রাখছেন অজয় সিসোদিয়া৷

Advertisement ---
-----