ধর্ষকদের সমঝোতার ৩০ হাজার টাকায় পাঁঠার মাংস বিলোল পঞ্চায়েত

প্রতীকী ছবি

রায়পুর: এক বর্বরোচিত ধর্ষণের ঘটনা ছত্তিসগড়ে। নাবালিকা ধর্ষণের অভিযোগ তিনজনের বিরুদ্ধে। সেখানেই শেষ নয়। ওইসব ধর্ষকদের টাকায় জমিয়ে পাঁঠার মাংস রান্না করে গ্রামে বিলিয়ে দিল পঞ্চায়েত। ছত্তিসগড়ের জাশপুরের ঘটনা।

ওই গ্রামেরই এক যুবক দেখে ফেলেছিল ধর্ষণের ঘটনা। গ্রামের তিন মেয়েকে ধর্ষণের চেষ্টা চালাচ্ছিল তিন যুবক। এদের মধ্যে দু’জন নাবালিকাও ছিল। ওই যুবক এই ঘটনার প্রতিবাদ জানায়। পালিয়ে যায় ওই তিন অভিযুক্ত। ৫ জুলাই এক নাবালিকার পরিবারের তরফে নিখোঁজ ডায়রি করা হয়।

অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে থানায় যাওয়ার সময় পঞ্চায়েত তাদের ডেকে নেয়। টাকা নিয়ে সমঝোতা করতে বলে পঞ্চায়েত। তাতে আপত্তি জানায় নির্যাতিতার বাবা-মা। কিন্তু বাবা-মা’কে এফআইআরে বাধা দেয় পঞ্চায়েত। দু’পক্ষের মধ্যে বচসাও হয়।

- Advertisement -

ওই পরিবারকে বিষয়টি মেনে নিতে বাধ্য করা হয়। এখানেই শেষ হয়ে যায়নি। প্রত্যেক অভিযুক্তদের কাছ থেকে ১০,০০০ টাকা করে নেয় পঞ্চায়েত। এরপর সেই টাকায় হয় মাটন পার্টি। এলাকার ৪৫ জনকে খাওয়ানো হয় পাঁঠার মাংস।

পুলিশ পুরো বিষয়টি নিয়েই অন্ধকারে ছিল। সংবাদমাধ্যমের তৎপরতায় তারা বিষয়টি জানতে পারে। এরপর শুরু হয়েছে তদন্ত।

Advertisement ---
---
-----