ফরোয়ার্ড ব্লক থেকে এসেই তৃণমূলে বড় পদে পরেশ অধিকারী

স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা : সদ্য তৃণমূল কংগ্রেসে যোগ দেওয়া প্রাক্তন ফরওয়ার্ড ব্লক নেতা পরেশ অধিকারীকে সহ সভাপতির দায়িত্ব দিল কোচবিহার জেলা তৃণমূল কংগ্রেস৷ তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নির্দেশেই এই পদ দেওয়া হয় তাঁকে৷

দলনেত্রীর নির্দেশে বুধবার কোচবিহার জেলা তৃণমূল কংগ্রেসে গঠিত হল ৪ সদস্যের কোর কমিটি। কমিটির চেয়ারম্যান হলেন উত্তরবঙ্গ উন্নয়ন মন্ত্রী রবীন্দ্রনাথ ঘোষ। বাকি তিন সদস্যের মধ্যে আছেন বনমন্ত্রী বিনয় কৃষ্ণ বর্মন, দিনহাটার বিধায়ক উদয়ন গুহ ও শীতলকুচির বিধায়ক হিতেন বর্মন। সাংগঠনিক কাজের সুবিধার জন্যই এই কোর কমিটি গঠন করা হয় বলে দলীয় সূত্রে খবর৷

পড়ুন: বুদ্ধকে নিয়ে Fake News! চটেছে সিপিএম

- Advertisement -

এরআগে, তৃণমূলে যোগ দেন রাজ্যের প্রাক্তন খাদ্যমন্ত্রী ও কোচবিহার জেলা ফরওয়ার্ড ব্লকের সম্পাদক পরেশ অধিকারী৷ বিভাজনের রাজনীতি ও এনআরসির বিরোধিতা করতেই ফরওয়ার্ড ব্লক ছেড়ে তাঁর শাসক দলে যোগদান বলে দাবি করেছিলেন পরেশ অধিকারী৷ সেদিন তিনি বলেছিলেন, মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নেতৃত্বে রাজ্যে যেভাবে উন্নয়ন হচ্ছে তাতে সামিল হতেই ছাড়ছেন দীর্ঘদিনের দল।

তৃণমূল ভবনে দলের মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায়, উত্তরবঙ্গ উন্নয়নমন্ত্রী তথা জেলা তৃণমূল সভাপতি রবীন্দ্রনাথ ঘোষ, উদয়ন গুহ, মন্ত্রী রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়ের উপস্থিতিতে শাসক দলে যোগ দেন পরেশ অধিকারী৷
তাঁর পদত্যাগের প্রতিক্রিয়ায় ফরওয়ার্ড ব্লকের (ফব) রাজ্য সম্পাদক নরেন চট্টোপাধ্যায় বলেন পরেশ অধিকারী দল ছাড়ার প্রভাব পড়বে না। বরং রাজ্যের মানুষের কাছে ওঁর রাজনৈতিক অভিসন্ধি স্পষ্ট হবে। তারাই ওঁকে উচিত শিক্ষা দেবেন।

পড়ুন: উচ্ছেদের নামে গায়ে গরম দুধ! অভিযুক্ত বিধাননগর পুরসভা

ফব-র বড় নেতা ছিলেন পরেশ অধিকারী। নিজের জেলা কোচবিহারে ভালো প্রভাবও ছিল তাঁর। দীর্ঘদিনের মন্ত্রী থাকার পাশাপাশি দলের পদও সামলেছেন। কিন্তু গত বিধানসভা নির্বাচনে হেরে যান তিনি। এরপরই দলের কাজ থেকে নিজেকে সরিয়ে নিয়েছিলেন একটু একটু করে। শেষমেশ শাসক শিবিরে নাম লেখালেন তিনি।

বামেদের রক্তক্ষরণ অব্যাহত৷ রেজ্জাক মোল্লা, ছায়া দলুইয়ের পর আরও এক বাম আমলের মন্ত্রী যোগ দেন তৃণমূলে৷ আর জেলার রাজনীতিতে উদয়ন গুহর পরে পরেশবাবুকে দলে নিয়ে কোচবিহার ১৯ ও ২১শের ভোটে বাজি জেতার লক্ষ্যে রাজ্যের শাসক শিবির৷

Advertisement
----
-----