স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: নির্বাচন কমিশনারের সঙ্গে দেখা করতে গিয়ে বামেদের বিক্ষোভের মুখে পড়লেন তৃণমূলের মহাসচিব তথা রাজ্যের শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়৷ সোমবার তাঁর গাড়ি ঘিরে বিক্ষোভ দেখালেন দক্ষিণ ২৪ পরগণা জেলায় মনোনয়ন জমা দিতে না পারা বহু বাম প্রার্থী৷ নেতৃ্ত্বে ছিলেন সিপিএমের বর্ষীয়ান নেতা তথা বিধায়ক সুজন চক্রবর্তী৷

রাজ্যের শাসক দলের বিরুদ্ধে মনোনয়নে বাধা দেওয়ার অভিযোগ তুলে গত কয়েকদিন ধরেই কমিশনের দফতরের বাইরে বিক্ষোভ দেখাচ্ছে বামেরা৷ এমনকি বিমান বসু, সূর্যকান্ত মিশ্রদের মতো শীর্ষ নেতারা এসেও কমিশনের কাছে নালিশ জানিয়ে গিয়েছেন৷ কিন্তু তাতে কোনও ফল না হওয়ায় সোমবার, মনোনয়নের শেষ দিনে ফের কমিশনের দ্বারস্থ হয় দক্ষিণ ২৪ পরগণা জেলায় মনোনয়ন জমা দিতে না পারা বহু বাম প্রার্থী৷ তাঁদের গলায় ঝোলানো ছিল ‘আমি প্রার্থী হতে চাই’ লেখা৷

Advertisement

এদিন মনোনয়ন জমা দেওয়ার জন্য কমিশনের হস্তক্ষেপ চেয়ে যখন তাঁরা দফতরের বাইরে জমায়েত হয়েছিলেন সেইসময় পার্থ চট্টোপাধ্যায় ঢোকেন কমিশনারের সঙ্গে দেখা করতে৷ তৃণমূলের মহাসচিব বাইরে বের হতেই তাঁকে উদ্দেশ্য করে স্লোগান দিতে থাকেন বাম প্রার্থীরা ৷

তারমধ্যেই তৃণমূলের মহাসচিব সাংবাদিকদের জানান, সুপ্রিম কোর্টের রায়কে তাঁরা স্বাগত জানাচ্ছে৷ সেইসঙ্গে বলেন, “নির্বাচন কমিশনকে বলেছি অবাধ ও শান্তিপূর্ণ ভোট করুন৷ কারোর চাপের কাছে মাথা নত করবেন না৷কাউকে ভয় পাওয়ার দরকার নেই৷”

পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের এই বক্তব্য আরও উত্তেজিত হয়ে পড়ে বাম প্রার্থীরা৷ তাঁর গাড়ি ঘিরে ধরে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেন৷ সেভ ডেমোক্রেসি ফোরামও এদিন পার্থ চট্টোপাধ্যায়কে ঘিরে বিক্ষোভ দেখিয়েছে৷

নির্বাচন কমিশনে পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের আসা প্রসঙ্গে সুজন চক্রবর্তী বলেন, “উনি(পার্থ চট্টোপাধ্যায়) যেমন বিরোধীদের ধমক দিচ্ছেন সেরকম আজকেও নির্বাচন কমিশনারকে ধমক দিতে এসেছিলেন৷ জিজ্ঞাসা করতে এসেছিলেন কেন নির্বাচন কমিশনার রাজ্যে নৈরাজ্য চলছে একথা বলেছেন৷উনিই এসেছিলেন কমিশনকে চাপে রাখতে৷”

----
--