চিকিৎসায় গাফিলতিতে রোগী মৃত্যুর জেরে উত্তেজনা

স্টাফ রিপোর্টার, দুর্গাপুর: রোগীর মৃত্যুতে চিকিৎসায় গাফলতির অভিযোগ উঠল এক বেসরকারি হাসপাতালের বিরুদ্ধে৷ এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে বুধবার দুপুর থেকে একাধিকবার উত্তেজনা ছড়ায় পশ্চিম বর্ধমানের দুর্গাপুরে৷ অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে পুলিশ ও প্রশাসনের কাছে৷

দুর্গাপুরের ওই বেসরকারি হাসপাতালে জনৈক ওই ব্যক্তি মঙ্গলবার ভর্তি হয়েছিলেন৷ তাঁর পরিবারের দাবি, প্রাথমিক চিকিৎসার পর ধীরে ধীরে সুস্থ হয়ে উঠছিলেন তিনি৷ মঙ্গলবার বিকেলে পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে তিনি কথাও বলেন৷

আরও পড়ুন: প্রসূতির মৃত্যুতে কেন্দ্র করে দীঘা হাসপাতালে বিক্ষোভ-উত্তেজনা

- Advertisement -

কিন্তু বুধবার দুপুরে জানা যায়, তাঁর মৃত্যু হয়েছে৷ পরিবারের সদস্যদের প্রশ্ন, কীভাবে এক রাতের মধ্যে ওই ব্যক্তির অবস্থার অবনতি হল? পরিবারের সদ্স্যদের অভিযোগ, ওই বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসার গাফিলতি হয়৷ তার জেরেই মৃত্যু হয়েছে ওই ব্যক্তির৷ এর জেরে বুধবার দুপুর থেকেই ওই বেসরকারি হাসপাতাল চত্বরে উত্তেজনা ছড়ায়৷ বিক্ষোভ দেখান মৃতের পরিবারের সদস্যরা৷ তাঁরা মৃতের ময়নাতদন্তের দাবি তোলেন৷ যদিও ওই বেসরকারি হাসপাতালের তরফে ওই দাবি নাকচ করে দেওয়া হয়৷ তাদের দাবি, চিকিৎসায় কোনও গাফিলতি হয়নি৷ তাদের হাসপাতালে ভর্তি করার আগে থেকেই ওই ব্যক্তির শারীরিক অবস্থা খারাপ ছিল৷ চিকিৎসা শুরু হলেও ক্রমশ তাঁর অবস্থার অবনতি হয়৷ অনেক চেষ্টা সত্ত্বেও তাঁকে বাঁচানো যায়নি৷

এর পর চিকিৎসায় গাফিলতির অভিযোগ নিয়ে পুলিশ ও প্রশাসনের দ্বারস্থ হন মৃতের পরিবারের সদস্যরা৷ ওই বেসরকারি হাসপাতালের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করা হয় দুর্গাপুর থানায়৷ অভিযোগ জানানো হয় দুর্গাপুরের মহকুমাশাসকের কাছেও৷ পুলিশ ও প্রশাসনের তরফে মৃতের ময়নাতদন্তের নির্দেশ দেওয়া হয়৷ সেই মতো আজ, বৃহস্পতিবার মৃতের ময়নাতদন্ত হবে৷ তবে এ নিয়ে পুলিশ বা প্রশাসন, কারও তরফেই কোনও বক্তব্য পাওয়া যায়নি৷

আরও পড়ুন: বিনা চিকিৎসায় কিশোরের মৃত্যুর অভিযোগে খাতড়া মহকুমা হাসপাতালে বিক্ষোভ

প্রসঙ্গত, সরকারি-বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসার গাফিলতিতে মৃত্যুর অভিযোগ নতুন নয়৷ প্রায়ই এই ধরনের অভিযোগ শোনা যায়৷ গত কয়েকমাসে এ নিয়ে একাধিক বিক্ষোভ-ভাঙচুর হয়েছে৷ কয়েকমাস আগে কলকাতার একাধিক বেসরকারি হাসপাতালে এই ধরনের অভিযোগ ওঠে৷ এ নিয়ে কড়া পদক্ষেপ নিয়েছিল প্রশাসনও৷ বেসরকারি হাসপাতালগুলির সঙ্গে বৈঠকও করেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ জেলায় জেলায় বেসরকারি হাসপাতালগুলিতে সঠিকভাবে পরিষেবা দিতে কড়া বার্তা দেওয়া হয়েছিল রাজ্য প্রশাসনের তরফে৷ তার পরও যে পরিস্থিতি বদলায়নি, তার প্রমাণ মিলল দুর্গাপুরে৷

Advertisement ---
---
-----