হাসপাতালে রোগীর আত্মহত্যা, নিরাপত্তা নিয়ে প্রশ্ন

স্টাফ রিপোর্টার, বাঁকুড়া: হাসপাতালের মধ্যেই কুয়োয় ঝাঁপ দিয়ে আত্মহত্যা করল রোগী৷ গোটা ঘটনাকে কেন্দ্র করে ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়ায় বাঁকুড়ার সোনামুখী হাসপাতালে৷ মৃতের নাম রাজু দত্ত (৪৫)৷ আর এই ঘটনার পরই হাসপাতালে ভরতি থাকা রোগীদের নিরাপত্তা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছে তাঁদের পরিবার৷ পাশাপাশি হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের ভূমিকা নিয়েও উঠেছে প্রশ্ন৷

স্থানীয় সূত্রে খবর, সোনামুখী শহরের পাঁচ নম্বর ওয়ার্ডের বড় কালীতলার বাসিন্দা রাজু দত্ত৷ এক সপ্তাহ আগে হাসপাতালে ভরতি হয়েছিলেন তিনি। অতিরিক্ত মদ্যপানের পাশাপাশি মানসিক ভাবেও অসুস্থ ছিলেন রাজু৷ এমনটাই দাবি করেছেন স্থানীয়দের একাংশ। সোমবার সকালে রাজু হাসপাতাল থেকে বেরিয়ে যায়৷ তারপর হাসপাতাল সংলগ্ন একটি কুয়োতে আচমকা ঝাঁপ দেয় সে৷ খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছয় সোনামুখী থানার পুলিশ। পরে দমকল কর্মীরা এসে কুয়ো থেকে ওই মৃতদেহ উদ্ধার করেন৷

আরও পড়ুন: Breaking: খুব শীঘ্রই পেট্রল পাওয়া যাবে ৫৫ টাকায়: গড়করি

- Advertisement -

এই ঘটনার পরই ব্যাপক উত্তেজনার সৃষ্টি হয় হাসপাতাল চত্বরে৷ হাসপাতালে ভরতি থাকা একজন রোগী কি করে বাইরে বেরিয়ে কুয়োতে ঝাঁপ দেয়? এই ঘটনায় হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের দায়বদ্ধতা ও ভরতি থাকা রোগীদের নিরাপত্তা ঠিক কতটা? সব বিষয় নিয়েই উঠেছে প্রশ্ন৷ স্থানীয়দের অভিযোগ, হাসপাতালে রোগীদের কোনও নিরাপত্তা নেই৷ যদিও এই প্রসঙ্গে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের থেকে এখনও কোনও রকম সদুত্তর পাওয়া যায় নি৷

তবে কি করে একজন রোগী হাসপাতালের নিরাপত্তা পেরিয়ে হাসপাতালের বাইরে যায়? আর কিভাবেই বা সকলের নজর এড়িয়ে আত্মহত্যার মতো ঘটনা ঘটে, সেই সব বিষয়ে তদন্তে নেমেছে সোনামুখী থানার পুলিশ৷ ইতিমধ্যেই ওই মৃতদেহটি উদ্ধার করে বিষ্ণুপুর জেলা হাসপাতালে ময়না তদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে৷ ময়না তদন্তের রিপোর্ট আসার পরই পরিষ্কার হবে ওই ব্যক্তি মানসিক ভাবে অসুস্থ ছিলেন কিনা৷

আরও পড়ুন: স্বঘোষিত গডম্যান ও তাঁর ছেলের বিরুদ্ধে মা ও মেয়েকে ধর্ষণের অভিযোগ

Advertisement
-----