সৌভ্রাতৃত্বের বার্তা দিচ্ছে পাত্রসায়রের ‘আমরা কজন’ 

তিমিরকান্তি পতি, বাঁকুড়া: শারদোৎসবের পর আলোর উৎসবেও থিমের চমক বাঁকুড়ার বেশ কিছু পুজো মণ্ডপে। জেলার পাত্রসায়রের ‘আমরা কজন’ ক্লাবের সদস্যরা তাদের কালী পুজোর মণ্ডপে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির বার্তা দিতে চাইছেন। প্রায় তিন লক্ষ টাকা বাজেটের এই পুজোর মণ্ডপ স্বর্ণ মন্দিরের আদলে করা হলেও মণ্ডপের চূড়ায় অভিনবত্ব রয়েছে। ‘ধর্ম আমার, ধর্ম তোমার। উৎসব হোক সবার’ এই স্লোগানকে সামনে রেখে এখানে মণ্ডপে পাশাপাশি দু’টি চূড়া রয়েছে। একটি হিন্দু মন্দিরের আদলে হলেও অন্যটি মসজিদের গম্বুজাকৃতির চূড়া। যা হিন্দু-মুসলিম সৌভ্রাতৃত্বের বার্তা দিচ্ছে বলেই মনে করা হচ্ছে।

২০০৫ সালে পাত্রসায়রে এই পুজোর সূচনা হয়। এই পুজো কমিটি প্রতি বছরই ভিন্ন স্বাদের অভিনব মণ্ডপ সজ্জা উপহার দিয়ে থাকে। এবারও তার অন্যথা হয়নি। বর্তমান সময়ে ধর্ম নিয়ে উত্তাল রাজনীতির আবহে এই মণ্ডপ সজ্জা এলাকার মানুষের কাছে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি অনন্য নজির হয়ে থাকবে বলেই মনে করা হচ্ছে।

- Advertisement -

পুজো কমিটির সদস্য সুব্রত দত্ত বলেন, ‘এলাকার মানুষের ঐকান্তিক প্রচেষ্টা আর সহযোগিতায় এই পুজো এবার ১৩ বছরে পদার্পণ করল। আমাদের এক ও একমাত্র পরিচয় আমরা ভারতবাসী। ক্ষমতার অপব্যবহার করে একটা শ্রেণি ভারতবাসীর মধ্যেই সাম্প্রদায়িক বিভেদ সৃষ্টি করতে চাইছে। তার বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াতেই এই ধরণের মণ্ডপ সজ্জা বলে তিনি জানান।’