সোশ্যাল মিডিয়ায় চ্যাট করতে গিয়ে ‘ইমোজি’ ব্যবহার আকছারই করে থাকেন অনেকে৷ কিন্তু অতিরিক্ত ‘ইমোজি’ ব্যবহার কি সেক্স অ্যাডিক্টের লক্ষন? সাম্প্রতিক এক সমীক্ষা অন্তত সে কথাই জানাচ্ছে৷

 একটি অনলাইন ডেটিং সাইটের তরফে এই সমীক্ষার আয়োজন করা হয়৷ প্রায় ৫০০০ জনের উপর সমীক্ষা চালিয়ে দেখা যায়, একাধিকবার যৌনতার কথা যাঁরা চিন্তা করেন, তাঁদের মধ্যে ৪৬ শতাংশই পোস্টে একাধিক ‘ইমোজি’ ব্যবহার করেন৷ যাঁদের ভাবনায় যৌনতা প্রায় নেই, তাঁরা সচরাচর ইমোজি ব্যবহারই করেন না৷ অন্যদিকে যাঁরা দিনে একবার যৌনতার ভাবনাকে প্রশ্রয় দেন, তাঁরা তুলনায় কম হলেও ইমোজি ব্যবহার করেন৷

objects-0224এর আগে প্রায় ২৫টি দেশের অধিবাসীদের মধ্যে সমীক্ষা চালিয়ে উঠে এসেছিল নানা নতুন তথ্য৷ যেমন দেখা গিয়েছে ফ্লার্টিংয়ের জন্য ‘উইঙ্ক’ ইমোজির চল বেশি৷ সম্পর্কের ক্ষেত্রে সবথেকে জনপ্রিয় ইমোজি হল ‘স্মাইলি’৷ সাম্প্রতিক সমীক্ষা অবশ্য একেবারে অন্য একটি দিক তুলে ধরেছে৷ ইমোজি ব্যবহারের সঙ্গে যৌনতার ধারনার সম্পর্কটি বিশ্লেষণ করে দেখা হয়েছে এখানে৷ যেমন দেখা গিয়েছে রোম্যান্টি ইমোজি হিসেবে যেটি সবথেকে জনপ্রিয় তা হল, হার্ট শেপের চোখওয়ালা স্মাইলি৷ যৌনতার প্রকাশ সবথেকে বেশী যে ইমোজির ক্ষেত্রে দেখা যায়, তা হল ‘এগপ্ল্যান্ট’ ইমোজি৷ পার্পল রঙের এই সবজি বিভিন্ন মাধ্যমে নানারকম দেখতে৷ যৌনতার জোরালো প্রকাশ এগুলোরই মাধ্যমে৷ ‘ব্যানানা ইমোজি’ও অবশ্য একই উদ্দেশ্যপূরণে বেশ জনপ্রিয়৷ দেখা গিয়েছে, মহিলিরা ‘ব্যানানা ইমোজি’ বেশী পছন্দ করলেও, পুরুষের পছন্দ ‘এগপ্ল্যান্ট’ ইমোজি৷1715b621dd2e29e2515190ceb04d81a9 টুইটারের মতো জনপ্রিয় মাইক্রোব্লগিং সাইটেও এর কদর ও ব্যবহার তুঙ্গে৷

গবেষকদের মতে সবজি বা ফলের ইমোজি আসলে শরীরেরই প্রতীক৷ আর তাই এই ধরনের ইমোজির ব্যবহারের তারতম্যই জানিয়ে দেয় শারীরিক বিষয়ে বা যৌনতার ক্ষেত্রে কার ভাবনা কীরকম৷ তবে শুধু যৌনতাই নয়, বিয়ে করা বা ফ্লার্ট করা কিংবা ডেটিংয়ে যাওয়ার প্রবণতাও চিনিয়ে দেয় ইমোজির ব্যবহারই৷

----
--