লস্কর-জামাতকে দেশপ্রেমী বলে জোট চাইলেন প্রাক্তন প্রেসিডেন্ট

করাচি: ‘লস্কর, জামাত দেশপ্রেমী। ওরা দেশের জন্য কাশ্মীরে নিজেদের জীবন বলি দিয়েছে। এই দুটি গোষ্ঠীর সঙ্গে বহু মানুষের সমর্থন আছে। ওদের সঙ্গে অনেক ভাল মানুষও আছেন। তাই ওরা রাজনৈতিক দল গঠন করলে কারও আপত্তি থাকার কথা নয়।’

ফের বিস্ফোরক পাকিস্তানের প্রাক্তন প্রেসিডেন্ট পারভেজ মুশারফ৷ পরিস্কার জানিয়ে দিলেন লস্কর-ই-তৈবা বা জামাত-উদ-দাওয়ার মতো গোষ্ঠীর সাথে পাকিস্তানের নিরাপত্তার স্বার্থে তিনি জোট করতেও রাজি৷ কারণ এরা নাকি দেশপ্রেমী৷

এই মূহুর্তে দুবাইয়ে রয়েছেন জেনারেল মুশারফ৷ এর আগেও এভাবে সন্ত্রাসবাদী সংগঠনগুলির পাশে থাকা নিয়ে নিজের অবস্থান স্পষ্ট করেছেন মুশারফ৷ তবে এতে রাজনৈতিক চালের ইঙ্গিত দেখছেন আন্তর্জাতিক বিশেষজ্ঞরা৷ তাদের মত, পাকিস্তানে দেশদ্রোহিতার অভিযোগে পারভেজের বিরুদ্ধে মামলা চলছে। দীর্ঘদিন আদালতের নির্দেশে তাঁকে গৃহবন্দি করে রাখা হয়। এই অবস্থায় পাকিস্তান সরকারকে পাল্টা প্যাঁচে ফেলতেই পারভেজ তিনি সরাসরি সন্ত্রাসবাদীদের পাশে দাঁড়ানোর বার্তা দিয়েছেন৷

- Advertisement -

তিনি বলেন, মিলি মুসলিম লিগ নাম নিয়ে ২০১৮ সালে পাক সাধারণ নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবে জামাত৷ মুশারফও এই নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করার জন্য তৈরি হচ্ছেন। এই পরিস্থিতিতে নিজে থেকেই লস্কর ও জামাতের সঙ্গে জোট গড়ার ইচ্ছাপ্রকাশ করলেন মুশারফ।

প্রসঙ্গত, নভেম্বর মাসেই তিনি ২৬/১১ হামলায় প্রধান অভিযুক্ত হাফিজ সইদের প্রশংসা করেছিলেন। হাফিজের সন্ত্রাসবাদী সংগঠন জামাত-উদ-দাওয়াকেও সমর্থন জানিয়ে ছিলেন তিনি৷ এমনকি কাশ্মীরে ভারতীয় সেনার বিরুদ্ধে লড়াইয়ে লস্করকে সবচেয়ে শক্তিশালী সংগঠন হিসাবে ঘোষণাও করেছেন তিনি৷

Advertisement ---
---
-----