রাষ্ট্রদ্রোহীতা মামলায় এবার ট্রায়ালের মুখে মুশারফ

ইসলামাবাদ: নওয়াজের পর পারভেজ৷ এবার আইনি প্রক্রিয়ায় পারভেজের মামলা৷ রাষ্ট্রের বিরুদ্ধে বিশ্বাসঘাতকতা মামলায় এবার ট্রায়ালের মুখে পড়বেন পারভেজ মুশারফ৷ সোমবার পারভেজের বিরুদ্ধে দায়ের মামলা নিয়ে লাগাদার ট্রায়ালের সিদ্ধান্ত ইসলামাবাদের বিশেষ আদালতের৷ ৯ অক্টোবর থেকে শুরু হবে মুশারফের বিরুদ্ধে আইনি প্রক্রিয়া৷ যার জেরে বেশ চাপের মুখে দেশছাড়া প্রাক্তন রাষ্ট্রপ্রধান মুশারফ৷

নওয়াজ শরিফের দল মুসলিম লীগ নওয়াজ-ই মুশারফের বিরুদ্ধে মামলা করে৷ বর্তমানে, পিএমএল-এন চিফ নওয়াজদেশদ্রোহীতার অভিযোগে বন্দি৷ এবার সেই তালিকায় আসতে পারেন পারভেজ মুশারফ বলে মনে করা হচ্ছে৷ ২০১৬ সালে চিকিৎসার কারণ দেখিয়ে পাকিস্তান ছাড়েন পারভেজ মুশারাফ৷ বর্তমানে মুশারফের ঠিকানা দুবাই৷ দেশ ছাড়ার আগে প্রয়োজন পড়লেই দেশে ফিরে আসবেন বলে জানিয়েছিলেন মুশারফ৷ ২ বছর কেটে যাওয়ার পরও পাকিস্তানমুখও হননি তিনি৷ কারণ হিসেবে, পাকিস্তানে নিরাপত্তার অভাবকে সামনে রাখেন তিনি৷ মুশারফের আইনজীবীও সেই কারণই আদালতে পেশ করেন৷

পড়ুন:ঘুরিয়ে বাংলাদেশকে আরও ২৭ কোটি ডলার লোন দিচ্ছে বেজিং

- Advertisement -

এবার মামলার ফেঁড়েয় মুশারফ পাকিস্তানে ফিরে আসবেন কি না, সেই প্রশ্নই বড় হয়ে দাঁড়াচ্ছে৷ মুশারফের আইনজীবী জানিয়েছেন, রাষ্ট্রপতি স্তরের নিরাপত্তা না পেলে মুশারফ পাকিস্তানে আসতে পারবেন না৷ সেক্ষেত্রে, মুশারফের বয়ান ভিডিও করার ব্যবস্থাও করতে পারে ইসলামাবাদ বলে জানা যাচ্ছে৷

২০১৩ সালে মুশারফের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহীতার অভিযোগ আনে নওয়াজের দল৷ ২০০৭ সালে পাকিস্তানে জরুরী অবস্থা জারির যে সিদ্ধান্ত মুশারফ নিয়েছিলেন, তার বিরুদ্ধেই মামলা দায়ের হয়৷ ২০০৮ সালে মুশারফ রাষ্ট্রপ্রধানের পদ থেকে সরে আসতে বাধ্য হন৷

Advertisement ---
-----