সপ্তমীর দিন দাম বেড়ে জ্বালানি ৯০ এর কাছাকাছি

নয়াদিল্লি: দাম কমার কোনও লক্ষণ নেই, উপরন্তু নিজের দর একটু একটু করে বাড়িয়েই চলেছে পেট্রল-ডিজেল৷ আশঙ্কাকে সত্যি করে ৯০ এর আরও কাছে এগিয়ে গেল জ্বালানি মূল্য৷

পুজোর মরসুমে ফের বাড়ল দাম৷ দিল্লিতে ০.১১ পয়সা বেড়ে পেট্রলের দাম প্রতি লিটারে হয়েছে ৮২.৮৩ পয়সা এবং ০.২৩ পয়সা বেড়ে প্রতি লিটারে ডিজেলের দাম হয়েছে ৭৫.৬৯ পয়সা৷

পাশাপাশি মুম্বইয়ে ০.১১ পয়সা বেড়ে প্রতি লিটারে পেট্রলের দাম হয়েছে ৮৮.২৯ পয়সা এবং ০.২৪ পয়সা বেড়ে প্রতি লিটার ডিজেলের দাম হয়েছে ৭৯.৩৫ পয়সা৷ এদিকে তেলের দাম ক্রমশ নাগালের বাইরে চলে যাওয়ায় সরকারের বিরুদ্ধে তীব্র আক্রমণ শুরু করে বিরোধী দলগুলি৷ চাপের মুখে বাধ্য হয়ে উৎপাদন শুল্ক আড়াই টাকা কমায় মোদী সরকার৷ কিন্তু তাতেও স্বস্তি ফিরল আর কই? সরকারের অস্বস্তি বাড়িয়ে আবার উধ্বর্মুখী তেলের দাম৷

এদিকে আগামী ২২ অক্টোবর দিল্লির সব পেট্রল পাম্প বন্ধের সিদ্ধান্ত ডিলারদের৷ সোমবার ঘোষণা দিল্লি পেট্রল ডিলারস অ্যাসোসিয়েশনের(ডিপিডিএ)৷ জ্বালানির উপর ভ্যাট না কমানোর সরকারি সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে এই সিদ্ধান্ত বলে জানানো হয় ডিপিডিএ’র তরফে৷

ডিলারদের এই সিদ্ধান্তের সর্বাত্মক প্রভাব পড়বে দিল্লি জুড়ে৷ কেননা ওই দিন ৪০০টি পেট্রল পাম্প বন্ধ থাকবে৷ অ্যাসোসিয়েশনের তরফে বিবৃতি জারি করে বলা হয়েছে, দিল্লিতে ৪০০টি পেট্রল পাম্প রয়েছে৷ এই পেট্রল পাম্পগুলিতেই আবার রয়েছে সিএনজি পাম্প৷ ওই দিন সকাল ৬টা থেকে পরের দিন সকাল ৫টা পর্যন্ত বন্ধ থাকবে পেট্রল পাম্পগুলি৷

জ্বালানির ক্রমাগত দাম বৃ্দ্ধির পর কেন্দ্রীয় সরকার আড়াই টাকা উৎপাদন শুল্ক কমানোর সিদ্ধান্ত নেয়৷ তারপর একাধিক রাজ্য সরকার সেই পথে হেটে তেলের উপর ভ্যাট কমিয়ে দেয়৷ কিন্তু দিল্লির অরবিন্দ কেজরিওয়ালের সরকার তেলের উপর ভ্যাট কমাতে নিমরাজি৷ ফলে অন্যান্য রাজ্যগুলিতে তেলের দামে সামান্য ছাড় পাওয়া গেলেও এখানে সেই সুবিধা পাওয়া যাচ্ছে না৷

----
-----