নয়াদিল্লি: বিগত আট দিন ধরেই পেট্রোল সঙ্কটের মুখে পড়েছে পাকিস্তান৷ দেশের বেশ কয়েকটি ভাগে কল-কারখানা ও পরিবহনের উপর এর প্রভাব পড়েছে৷

বিগত সপ্তাহে পাকিস্তানের পাঞ্চাব ও রাজধানী ইসলামাবাদেই দেখা দেয়৷ সোমবারের মধ্যেই করাচি-সহ দেশের অন্য প্রান্তেও শুরু হয়েছে হাহাকার৷ গত সোমবার এই প্রসঙ্গে একটি বৈঠক করেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী নাওয়াজ শরিফ৷ এই বৈঠকে তিনি পেট্রোলিয়াম সচিব আবিদ সইদ ও পাকিসতান স্টেট ওয়েলের প্রধান আমজাদ জাঞ্জুয়াকে বরখাস্ত করেন৷ এছাড়াও এই বৈঠকে পেট্রোল সঙ্কটের কারণ খতিয়ে দেখতে দুই সদস্যের একটি বিশেষ দল গঠন করা হয়৷ বুধবার এই বিশেষ দল তাদের প্রাধমিক তদন্তের একটি রিপোর্ট প্রধানমন্ত্রীর কাছে পেশ করেছে৷

Advertisement

এই রিপোর্টে বলা হয়েছে৷ অয়েল অ্যান্জ গ্যাস অফরিটির অসফলতার কারণেই দেশে পেট্রোল সঙ্কট সৃষ্টি হয়েছে৷ এছাড়াও সরকারি তরফে জানান হয়েছে, জানুযায়ী মাসে পেট্রোলের বাড়তি চাহিদা, পাকিস্তানের সবচেয়ে বড় তৈল শোধনাগারের আংশিক রূপে বন্ধ হয়ে যাওয়া ও পেট্রোলিয়াম আমদানিতে দেরীর কারণেই পাকিস্তানে পেট্রোল সঙ্কট দেখা দিয়েছে৷
অন্যদিকে, পেট্রোলের সঙ্কটের কারণে চরম সঙ্কটে পড়েছে দেশের বাসিন্দারা৷ পোট্রোল পাম্পগুলিতে গাড়ির লম্বা লাইন পড়ে গিয়েছে৷ একদিকে যেমনব পেট্রোলের অভাবে সাধারণ মানুষের মনে ক্ষোভ সৃষ্টি হয়েছে অন্য দিকে পাকিস্তানের গণমাধ্যমগুলি পাকিস্তান সরকারকে দোষারোপ শুরু করেছে৷

----
--